বিবৃতি

৭ নভেম্বর ২০১৫, শনিবার, ১১:৩২

জামায়াতে ইসলামীর নেতা-কর্মীদের উপর সরকারের জুলুম-নির্যাতন সীমা ছাড়িয়ে যাচ্ছে

আজ ৭ নভেম্বর সিলেট উত্তর সাংগঠনিক জেলার জকিগঞ্জ উপজেলা পরিষদের ভাইস-চেয়ারম্যান মো: জাবেদ আহমাদকে ও নোয়াখালী জেলার চাটখিল উপজেলা জামায়াতের আমীর মো: সাইফুল্লাহসহ সারা দেশে জামায়াতে ইসলামী ও ছাত্রশিবিরের নেতা-কর্মীদের গণহারে গ্রেফতার এবং গাইবান্ধা জেলার পলাশবাড়ি উপজেলায় জামায়াত কর্মীদের ২টি বাড়িতে হামলা, ভাংচুর ও ১টি মটর সাইকেল লুট করে নিয়ে যাওয়ার ঘটনার তীব্র নিন্দা এবং প্রতিবাদ জানিয়ে আজ ৭ নভেম্বর প্রদত্ত এক বিবৃতিতে বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামীর কেন্দ্রীয় নির্বাহী পরিষদ সদস্য ও সাবেক এমপি জনাব হামিদুর রহমান আযাদ বলেন, “সরকার সারা দেশে জামায়াতের নেতা-কর্মীদের অন্যায়ভাবে গ্রেফতার করে রাজনৈতিক প্রতিহিংসা চরিতার্থ করছে।
জামায়াতে ইসলামীর নেতা-কর্মীদের উপর সরকারের জুলুম-নির্যাতন সীমা ছাড়িয়ে যাচ্ছে। গত রাত ও আজ সারাদিনে দেশের বিভিন্ন স্থানে জামায়াতে ইসলামী এবং ইসলামী ছাত্রশিবিরের নেতা-কর্মীকে পুলিশ গণহারে অন্যায়ভাবে গ্রেফতার করেছে। জামায়াতে ইসলামীর ও ইসলামী ছাত্রশিবিরের নির্দোষ নেতা-কর্মীদের গ্রেফতার করার মধ্য দিয়ে সরকারের ¯ৈ^রাচারী চেহারাই জাতির সামনে নগ্নভাবে ফুটে উঠেছে।
পুলিশ পলাশ বাড়িতে জামায়াত কর্মীদের ২টি বাড়ীতে হামলা চালিয়ে ভাংচুর করেছে এবং ১টি মটর সাইকেল লুট করে নিয়ে গিয়েছে। পুলিশ যদি এ ধরনের সন্ত্রাসী কর্মকান্ড করে তাহলে মানুষের জানমালের নিরাপত্তা বিধান করবে কে? জামায়াতের কর্মীদের বাড়ীতে হামলা ও মটর সাইকেল লুটকারী পুলিশের বিরুদ্ধে আইনগত পদক্ষেপ গ্রহণ করার জন্য আমি সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের প্রতি আহŸান জানাচ্ছি।
অত্যাচার নির্যাতন বন্ধ করে সিলেট উত্তর সাংগঠনিক জেলার জকিগঞ্জ উপজেলা পরিষদের ভাইস-চেয়ারম্যান মো: জাবেদ আহমাদ ও নোয়াখালী জেলার চাটখিল উপজেলা জামায়াতের আমীর মো: সাইফুল্লাহসহ সারা দেশে জামায়াতের গ্রেফতাকৃত নেতা-কর্মীদের অবিলম্বে মুক্তি দেয়ার জন্য আমি সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের প্রতি আহŸান জানাচ্ছি।”