বিবৃতি

২৮ অক্টোবর ২০১৫, বুধবার, ১১:৪৭

২৮ অক্টোবর বুধবার দেশব্যাপী শান্তিপূর্ণ বিক্ষোভ কর্মসূচি ঘোষণা

২০০৬ সালের ২৮ অক্টোবর বায়তুল মোকাররম জাতীয় মসজিদের উত্তর গেটে আয়োজিত বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামীর সমাবেশে হামলা চালিয়ে জামায়াত ও ছাত্রশিবিরের নেতা-কর্মীদের নৃশংসভাবে হত্যাকারীদের বিচারের দাবীতে আগামীকাল ২৮ অক্টোবর বুধবার দেশব্যাপী শান্তিপূর্ণ বিক্ষোভ কর্মসূচি ঘোষণা করে বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামীর ভারপ্রাপ্ত সেক্রেটারী জেনারেল ডা. শফিকুর রহমান আজ ২৭ অক্টোবর প্রদত্ত এক বিবৃতিতে বলেন, “২০০৬ সালের ২৮ অক্টোবর জাতীয় মসজিদ বায়তুল মোকাররমের উত্তর গেটে আয়োজিত জামায়াতের সমাবেশে আওয়ামী লীগের নেতৃত্বাধীন ১৪ দলীয় জোটের সন্ত্রাসীরা লগি-বৈঠা নিয়ে হামলা চালিয়ে পিটিয়ে জামায়াতে ইসলামী ও ইসলামী ছাত্রশিবিরের ৬ জন নেতাÑকর্মীকে হত্যা করে তাদের লাশের উপর দাঁড়িয়ে উল্লাস নৃত্য করে এ দেশের রাজনীতির ইতিহাসে এক কালো এবং কলঙ্কিত অধ্যায়ের সৃষ্টি করেছে।
আমরা দুঃখ ও বেদনার সাথে লক্ষ্য করছি যে, আজও ২৮ অক্টোবরের খুনীদের বিচার হয়নি। ঐ হত্যাকান্ডের নায়কদের বিচারের লক্ষ্যে জামায়াত মামলা করেছিল। কিন্তু বর্তমান সরকার আসামীদের বাঁচানোর জন্য সেই মামলা তুলে নিয়েছে। বারবার হত্যাকারীদের বিচারের দাবী জানানো সত্তে¡ও সরকার তাতে কর্ণপাত করছে না।
সেই দিন যারা নিহত হয়েছেন তাদের পিতা-মাতা আত্মীয়-¯^জন আজও ২৮ অক্টোবর এলে শোকে চোখের পানি ফেলে এবং হত্যাকারীদের বিচারের দাবী জানায়। সেই হত্যাকাণ্ডের নায়ক ও পৃষ্ঠপোষকগণই বর্তমানে ক্ষমতায় অধিষ্ঠিত। এ জন্যই সে হত্যাকাণ্ডের বিচার হচ্ছে না। বিচারের বাণী আজ নিরবে-নিভৃতে কাঁদে।
জাতীয় সংসদ নির্বাচন বানচাল করে অগণতান্ত্রিক ও অবৈধ সরকারকে ক্ষমতায় আনার জন্যই ২৮ অক্টোবরের নারকীয় হত্যাকাণ্ড সংঘটিত করা হয়েছিল। জাতীয় সংসদ নির্বাচন বানচাল করে অবৈধ সরকারের সহযোগীতায় ও পৃষ্ঠপোষকতায়ই বর্তমান সরকার ক্ষমতাসীন হয়েছে। বর্তমান সরকার গণতন্ত্র হত্যা করে জাতির ঘাড়ে একদলীয় ¯ৈ^রশাসন চাপিয়ে দিয়ে দেশকে রাজনীতি শূন্য করার ষড়যন্ত্র করছে। এ ষড়যন্ত্র রুঁখে দাঁড়াবার জন্য আমি দেশবাসীর প্রতি আহŸান জানাচ্ছি।
২৮ অক্টোবরের নৃশংস হত্যাকাণ্ডের বিচারের দাবী আজ গণদাবীতে পরিণত হয়েছে। ২০০৬ সালের ২৮ অক্টোবরের নারকীয় হত্যাকাণ্ডের সাথে জড়িত খুনীদের বিচারের দাবীতে আমি আগামীকাল ২৮ অক্টোবর বুধবার দেশব্যাপী শান্তিপূর্ণ বিক্ষোভ কর্মসূচি ঘোষণা করছি।
ঘোষিত এ কর্মসূচি শান্তিপূর্ণভাবে সফল করার জন্য আমি জামায়াতের সকল শাখার প্রতি আহŸান জানাচ্ছি এবং দেশবাসীর সহযোগিতা কামনা করছি।”