বিবৃতি

১০ অক্টোবর ২০১৬, সোমবার, ৫:৪৮

জঙ্গিবাদ ও উগ্রবাদের সাথে বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামীর কোন সম্পর্ক নেই

গত ৯ অক্টোবর বাংলাদেশ প্রতিদিন পত্রিকায় প্রকাশিত অবসরপ্রাপ্ত মেজর জেনারেল একে মোহাম্মাদ আলী শিকদারের (পিএসসি) বক্তব্যে “জঙ্গিবাদের মূল শেকড় বলতে বুঝাচ্ছি জামায়াত বা কট্টরপন্থী উগ্রবাদী ইসলামিক রাজনীতি” মর্মে যে ভিত্তিহীন অসত্য মন্তব্য করেছেন তার তীব্র প্রতিবাদ জানিয়ে বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামীর কেন্দ্রীয় নির্বাহী পরিষদ সদস্য ও সাবেক এমপি জনাব হামিদুর রহমান আযাদ আজ ১০ অক্টোবর প্রদত্ত এক বিবৃতিতে বলেন, “জঙ্গিবাদ ও উগ্রবাদের সাথে বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামীর কোন সম্পর্ক নেই। বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামী নিয়মতান্ত্রিক গণতান্ত্রিক ধারার স্বচ্ছ ও জবাবদিহিতামূলক রাজনীতিতে বিশ্বাস করে। অবসরপ্রাপ্ত মেজর জেনারেল একে মোহাম্মাদ আলী শিকদার উগ্রবাদ ও জঙ্গিবাদের সাথে জামায়াতে ইসলামীকে জড়িত করার অপচেষ্টা চালিয়ে মূলতঃ উদোর পিন্ডি বুদোর ঘাড়ে চাপাানোর চেষ্টা চালিয়েছেন। জামায়াতকে জড়িয়ে অসত্য মন্তব্য করা তাদের একটি বদ অভ্যাসে পরিণত হয়েছে।

তিনি জঙ্গিবাদ নির্মূলের জন্য বাংলাদেশে ধর্মভিত্তিক রাজনীতি নিষিদ্ধ করা জরুরী বলে যে মন্তব্য করেছেন তা ধান ভানতে শিবের গীত গাওয়ার শামিল। দেশবাসী সকলেই জানেন যে, বাংলাদেশের মূল ধারার ইসলামী দলের সাথে জঙ্গিবাদ ও উগ্রবাদের কোন সম্পর্ক নেই। প্রতিষ্ঠিত মূল ধারার কোন ইসলামী দলের সাথে জঙ্গিবাদ ও উগ্রবাদের সম্পর্ক থাকার কথা আজ পর্যন্ত কেউ কোথাও প্রমাণ করতে পারেনি। কাজেই জঙ্গিবাদ নির্মূলের জন্য ধর্মভিত্তিক রাজনীতি নিষিদ্ধ করা জরুরী বলে অবসরপ্রাপ্ত মেজর জেনারেল একে মোহাম্মাদ আলী শিকদার যে মন্তব্য করেছেন তা সম্পূর্ণ অন্যায়, অযৌক্তিক ও অনাকাক্সিক্ষত। যারা দেশকে জঙ্গিবাদ ও উগ্রবাদের অন্ধকারে ঠেলে দিয়ে দেশের সর্বনাশ করার ষড়যন্ত্র করছেন তারাই এ ধরনের অবাঞ্ছিত মন্তব্য করে পানি ঘোলা করার অপচেষ্টা চালাচ্ছেন।

জাতীয় স্বার্থেই এ ধরনের অনাকাক্সিক্ষত, অসংযত ও অসত্য মন্তব্য করা থেকে বিরত থাকার জন্য আমি অবসরপ্রাপ্ত মেজর জেনারেল একে মোহাম্মাদ আলী শিকদারের প্রতি আহ্বান জানাচ্ছি।”