বিবৃতি

১৯ এপ্রিল ২০১৭, বুধবার, ৮:৫১

যাতায়াতের ক্ষেত্রে বিরাজমান নৈরাজ্যজনক অবস্থায় গভীর উদ্বেগ প্রকাশ

রাজধানী ঢাকায় গণপরিবহন সিটিং ও গেইটলক সার্ভিস বন্ধ থাকায় জনগণের যাতায়াত সংকট চরম আকার ধারন করেছে

বর্তমান সরকার জনগণের নির্বাচিত নয় বলেই তারা জনগণের ভোগান্তি দেখেও দেখছেন না

রাজধানী ঢাকায় সড়ক পথে যাতায়াতের ক্ষেত্রে বিরাজমান নৈরাজ্যজনক অবস্থায় গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করে বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামীর নায়েবে আমীর ও সাবেক এমপি অধ্যাপক মিয়া গোলাম পরওয়ার আজ ১৯ এপ্রিল প্রদত্ত এক বিবৃতিতে বলেন, “রাজধানী ঢাকায় গণপরিবহন সিটিং ও গেইটলক সার্ভিস বন্ধ থাকায় জনগণের যাতায়াত সংকট চরম আকার ধারন করেছে। গত তিন-চার দিনেও পরিবহন সংকটের কোন সমাধান হয়নি।

ঢাকা শহরে প্রায় দেড় কোটিরও অধিক লোক বসবাস করছে। পরিবহন সংকটের কারণে রাজধানীবাসী চরম বিপাকে পড়েছেন। বিশেষ করে সবচেয়ে বেশি ভোগান্তির শিকার হচ্ছেন মহিলারা। এতগুলো মানুষকে চরম ভোগান্তির মধ্যে ফেলে দিয়ে সরকার তামাশা দেখছে। সরকারের কারণেই পরিবহন ক্ষেত্রে এ নৈরাজ্যজনক অবস্থা চলছে। বর্তমান সরকার জনগণের নির্বাচিত নয় বলেই তারা জনগণের ভোগান্তি দেখেও দেখছেন না।

ঢাকা শহরে সড়ক পথে যাতায়াতের ক্ষেত্রে চরম নৈরাজ্যজনক অবস্থার জন্য ঢাকাবাসী সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের সাহেবকেই দায়ী করছে। তিনি কিছুতেই এ নৈরাজ্যজনক অবস্থা সৃষ্টির দায়-দায়িত্ব এড়াতে পারেন না। ঢাকা শহরের সড়ক চলাচল ব্যবস্থার ক্ষেত্রে বিরাজমান সংকট সমাধানে তিনি চরম ব্যর্থতার পরিচয় দিচ্ছেন।

ওবায়দুল কাদের বলেছেন, পরিবহণ মালিকরা খুবই প্রভাবশালী। জাতি জানতে চায়, এসব প্রভাবশালী লোক কারা? তারা সরকারের ভেতরের লোক কিনা তা জনগণ জানতে চায়। তারা যতই প্রভাবশালী হোক না কেন তাদের নাম প্রকাশ করে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হোক।

ঢাকাবাসীর চরম ভোগান্তির কথা বিবেচনা করে জরুরী ভিত্তিতে সমস্যার সমাধান খুঁজে বের করে ঢাকাবাসীর যাতায়াতের ব্যবস্থা সুগম করার জন্য আমি সংশ্লিষ্ট মন্ত্রী ও মন্ত্রণালয়ের প্রতি আহ্বান জানাচ্ছি।”