Wednesday, 08th April, 2020
Choose Language:

সর্বশেষ
সংবাদ
গুলশান ও শোলাকিয়ায় জঙ্গি হামলা নিয়ে আওয়ামীলীগ নেতারা অব্যাহতভাবে মিথ্যা প্রচারণা চালাচ্ছে
১৪ জুলাই ২০১৬, বৃহস্পতিবার,
আওয়ামী লীগের যুক্তরাষ্ট্র শাখার সাংগঠনিক সম্পাদক আবদুল হাসিব মামুন “যুদ্ধাপরাধের দায়ে মৃত্যুদণ্ড পাওয়া মীর কাসেম আলীকে বাঁচাতেই গুলশান ও শোলাকিয়ায় জঙ্গি হামলা হয়েছে। ওই পরিকল্পনা ব্যর্থ হওয়ায় জামায়াত নেতারা মীর কাসেমের পুত্রসহ টাকার বস্তা নিয়ে দেনদরবার শুরু করেছে। ১১ জুলাই তারা জামায়াতের নেতা ব্যারিস্টার রাজ্জাককে নিয়ে ম্যানহাটনের একটি হোটেলে বৈঠকও করেছে।” মর্মে যে সব ভিত্তিহীন মিথ্যা মন্তব্য করেছেন তার তীব্র প্রতিবাদ জানিয়ে বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামীর কেন্দ্রীয় নির্বাহী পরিষদ সদস্য ও সাবেক এমপি জনাব হামিদুর রহমান আজাদ আজ ১৪ জুলাই প্রদত্ত এক বিবৃতিতে বলেন, “গুলশান ও শোলাকিয়ায় জঙ্গি হামলার সাথে মীর কাসেমকে বাঁচানোর চেষ্টার কোন সম্পর্ক নেই। আর টাকার বস্তা নিয়ে দেনদরবার করার প্রশ্নই আসে না।  

বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামী ও ইসলামী ছাত্রশিবিরের ভাবমর্যাদা ক্ষুণ্ণ করার হীন উদ্দেশ্যেই আওয়ামী লীগের নেতারা গুলশান এবং শোলাকিয়ায় জঙ্গি হামলার সাথে জামায়াতে ইসলামী ও ইসলামী ছাত্রশিবিরের সম্পর্ক আবিষ্কারের অপচেষ্টা চালাচ্ছেন। দেশবাসী জানেন যে, গুলশানের রেস্টুরেণ্টে যে ৫ জন জঙ্গি হামলা চালিয়েছে তাদের মধ্যে একজন হলো আওয়ামী লীগের নেতা ইমতিয়াজ খান বাবুলের পুত্র রোহান ইবনে ইমতিয়াজ। এ ঘটনা থেকে জনগণের দৃষ্টি ভিন্ন দিকে ফেরানোর উদ্দেশ্যেই এখন আওয়ামী লীগের নেতারা জামায়াতে ইসলামী ও ইসলামী ছাত্রশিবিরের বিরুদ্ধে মিথ্যা প্রচারণা চালাচ্ছে।   

জেএমবি ও আনসার উল্লাহ বাহিনীকে জামায়াতের মদদদানের প্রশ্ন অবান্তর। জামায়াতে ইসলামীকে নিষিদ্ধ করার যে দাবি তারা জানিয়েছেন তা সম্পূর্ণ অন্যায়, অযৌক্তিক ও বেআইনী। এভাবে ভিত্তিহীন মিথ্যা বক্তব্য দিয়ে দেশের জনগণকে বিভ্রান্ত করা যাবে না। 

তাই জামায়াতে ইসলামী ও ইসলামী ছাত্রশিবিরকে জড়িয়ে ভিত্তিহীন মিথ্যা বক্তব্য প্রদান করা থেকে বিরত থাকার জন্য আমি আওয়ামী লীগের যুক্তরাষ্ট্র শাখার নেতাদের প্রতি আহ্বান জানাচ্ছি।”