Thursday, 21st January, 2021
Choose Language:

সর্বশেষ
সংবাদ
মাওলানা নিজামীর মুক্তি কামনায় দেশব্যাপী দোয়া কর্মসূচী অনুষ্ঠিত
৬ মে ২০১৬, শুক্রবার,
জামায়াতে ইসলামীর আমীর মাওলানা মতিউর রহমান নিজামীর মুক্তি কামনায় গতকাল শুক্রবার রাজধানীর বিভিন্ন থানাসহ দেশব্যাপী দোয়া দিবস পালন করেছে জামায়াতে ইসলামী। এ উপলক্ষে বিভিন্ন স্থানে আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়। রাজধানীতে অনুষ্ঠিত দোয়া মাহফিলে জামায়াতে ইসলামীর কেন্দ্রীয় নির্বাহী পরিষদ সদস্য ও ঢাকা মহানগরীর নায়েবে আমীর মাওলানা আব্দুল হালিম বলেছেন, দেশ থেকে ইসলামী আদর্শভিত্তিক রাজনীতি নির্মূলের ষড়যন্ত্রের অংশ হিসাবেই প্রখ্যাত আলেমে দ্বীন, বরেণ্য রাজনীতিবিদ, পরিচ্ছন্ন ব্যক্তিত্ব ও আমীরে জামায়াত মাওলানা মতিউর রহমান নিজামীকে সরকার নির্মমভাবে হত্যার গভীর ষড়যন্ত্রে মেতে উঠেছে। কিন্তু কোন নেতাকে হত্যা করে ইসলামী আদর্শকে কোনভাবেই নির্মূল করা যায় না বরং তা জোরালো ও গতিশীল হয় এবং নেতাকর্মীদের মধ্যে নতুন উদ্দীপনা সৃষ্টি হয়। তিনি মাওলানা নিজামীর অবিলম্বে নিঃশর্ত মুক্তি দাবি করেন এবং তার সুস্থতা কামনায় মহান আল্লাহ দরবারে দোয়া করেন।
রাজধানীর একটি মিলনায়তনে কেন্দ্র ঘোষিত দেশব্যাপী দোয়া কর্মসূচির অংশ হিসাবে জামায়াতে ইসলামী ঢাকা মহানগরী আয়োজিত দোয়ার মাহফিলে সভাপতির বক্তব্যে তিনি একথা বলেন। আলোচনা সভায় উপস্থিত ছিলেন ঢাকা মহানগরীর কর্মপরিষদ সদস্য এডভোকেট ড. হেলাল উদ্দীন ও অধ্যাপক মোকাররাম হোসাইন খান, ঢাকা মহানগরীর মজলিসে শূরা সদস্য শামসুর রহমান ও জামায়াত নেতা আমিনুর রহমান প্রমুখ।
 
মাওলানা আব্দুল হালিম বলেন, আমীরে জামায়াত মাওলানা মতিউর রহমান নিজামী আপাদমস্তক আল্লাহর একজন প্রিয় গোলাম। ছাত্র জীবন থেকেই তিনি দেশ ও জাতির কল্যাণে নিবেদিত প্রাণ ছিলেন। তিনি আমীরে জামায়াত এবং মন্ত্রী হিসেবে দেশের মানুষের কল্যাণে নিরলসভাবে কাজ করে গেছেন। ফলে তিনি প্রমাণ করতে সক্ষম হয়েছেন দেশের স্বাধীনতা-সার্বভৌমত্ব রক্ষায়, আর্তমানবতার কল্যাণে এবং ইসলামী আদর্শ প্রতিষ্ঠার সংগ্রামে তিনি ছিলেন নিবেদিত, নিষ্ঠাবান, অবিচল ও আপোষহীন। মূলত তার নেতৃত্বের দূরদর্শিতা, প্রজ্ঞা এবং সাফল্যে ঈর্ষাকাতর হয়ে সরকার জামায়াতকে নেতৃত্বশূন্য করতেই তাকে হত্যার মত ঘৃণ্য কাজে এগিয়ে যাচ্ছে। কিন্তু সচেতন জনতা সরকারের সে ষড়যন্ত্র কখনোই মেনে নেবে না। তিনি সরকারকে প্রতিহিংসা ও হত্যার রাজনীতি পরিহার মাওলানা মতিউর রহমান নিজামীকে মুক্তি দিয়ে দেশ ও জাতির মাঝে ফিরিয়ে দেয়ার আহ্বান জানান।
 
মোহাম্মদপুর : জামায়াতে ইসলামীর কেন্দ্রীয় কর্মপরিষদ সদস্য ও ঢাকা মহানগরীর সহকারী সেক্রেটারি মঞ্জুরুল ইসলাম ভূঁইয়া বলেছেন, সরকার রাজনৈতিক প্রতিপক্ষকে রাজনৈতিক ও আদর্শিকভাবে মোকাবেলা করতে ব্যর্থ হয়ে হত্যা ও ষড়যন্ত্রের পথ বেছে নিয়েছে। তারই ধারাবাহিকতায় বিশ্ববরেণ্য আলেমে দ্বীন ও আমীরে জামায়াত মাওলানা মতিউর রহমান নিজামীকে সম্পূর্ণ অন্যায়ভাবে হত্যা করার গভীর ষড়যন্ত্রে লিপ্ত। কিন্তু সচেতন জনতা সরকারের সে ষড়যন্ত্র কখনোই মেনে নেবে না। তিনি আমীরে জামায়াতের মুক্তি কামনায় মহান আল্লাহ তায়ালার দরবারে দোয়া করেন।
 
জামায়াতে ইসলামী ঢাকা মহানগরী আয়োজিত দোয়া পূর্ব আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি একথা বলেন। ঢাকা মহানগরীর কর্মপরিষদ সদস্য মাওলানা দেলাওয়ার হোসাইনের সভাপতিত্বে উপস্থিত ছিলেন জামায়াত নেতা আব্দুল ওয়াজেদ, সৈয়দ কামরুল ইসলাম, মসিউর রহমান, মোঃ নজরুল ইসলাম ও জাহাঙ্গীর আলম প্রমুখ। 
মঞ্জুরুল ইসলাম ভূঁইয়া বলেন, আমীরে জামায়াত মাওলানা মতিউর রহমান নিজামী একজন প্রবীণ রাজনীতিবিদ, প্রখ্যাত আলেমে দ্বীন ও সাবেক সফল মন্ত্রী। তিনি পাবনা জেলার সাঁথিয়া ও বেড়া নির্বাচনী এলাকা থেকে ১৯৯১ এবং ২০০১ সালে দুইবার বিপুল ভোটে জাতীয় সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়ে জাতীয় সংসদে জাতির স্বার্থে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছেন। তার বিরুদ্ধে ১৯৭১ সালের ভূমিকা নিয়ে কেউ কোন প্রশ্ন তুলেনি। তাকে রাজনৈতিকভাবে মোকাবেলায় ব্যর্থ হয়ে সরকার তার বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা দিয়ে দলীয় লোকদের দ্বারা মিথ্যা সাক্ষী দিয়ে তাকে হত্যার গভীর ষড়যন্ত্রে মেতে উঠেছে। কিন্তু ইতিহাস সাক্ষী হত্যা করে জুলুম-নির্যাতন চালিয়ে অতীতে কোন আদর্শকে নির্মূল করা যায়নি, আর কখনো যাবেও না। তিনি সরকারের দেশ ও জাতিসত্তাবিরোধী ষড়যন্ত্র মোকাবেলায় সকলকে ঐক্যবদ্ধ হওয়ার আহবান জানান। 
রমনা থানা: রাজধানীর মগবাজারের শহীদ আলী আহসান মুহাম্মদ মুজাহিদ মিলনায়তনে এক দোয়া মাহফিল সংগঠনের কেন্দ্রীয় মজলিসে শূরা সদস্য ও রমনা থানা আমীর ড. মু. রেজাউল করিমের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত হয়েছে। দোয়া অনুষ্ঠানে উপিস্থিত ছিলেন, জামায়াতের ঢাকা মহানগরীর মজলিসে শূরা সদস্য ড.আহসান হাবিব, থানা সেক্রেটারি আবু জিসাম, তরবিয়ত ও প্রচার সম্পাদক আতাউর রহমান সরকার ও ওয়ার্ড সভাপতি সিদ্দিকুর রহমান প্রমুখ।
 
দোআ পূর্ব অনুষ্ঠানে সভাপতির বক্তব্যে ড. রেজাউল করিম বলেন, বিচার কার্যক্রমকে প্রভাবিত করে, মিথ্যা ও সাজানো সাক্ষীর ভিত্তিতে বরেণ্য একজন আলেম ও সাবেক মন্ত্রীকে হত্যা করার ষড়যন্ত্র করছে সরকার। যার পরিণাম ভালো হবে না। আওয়ামী সরকার দেশকে রক্তাক্ত জনপদে পরিণত করেছে। চিরদিন ক্ষমতায় থাকার মোহে একের পর এক আধিপত্যবাদ বিরোধী দেশপ্রেমিক সৎ ও ইসলামী নেতৃবৃন্দকে হত্যা করছে। তিনি অবিলম্বে মাওলানা নিজামীকে মুক্তি দিয়ে আওয়ামী লীগকে হত্যার রাজনীতি থেকে বের হয়ে গঠনমূলক রাজনীতিতে মনোযোগী হতে আহবান জানান।
 
যাত্রাবাড়ী পশ্চিম থানা : যাত্রাবাড়ী পশ্চিম থানার উদ্যোগে দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়। থানা আমীর খন্দকার আবু ফতেহ’র সভাপতিত্বে দোয়া পূর্ব আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন ঢাকা মহানগরীর কর্মপরিষদ সদস্য আব্দুস সবুর ফকির। উপস্থিত ছিলেন জামায়াত নেতা মাওলানা তাজ উদ্দীন, সিরাজুল ইসলাম, ইমদাদুল হক, আবুল হোসাইন ও সাইফুল্লাহ প্রমুখ।
মিরপুর পূর্ব থানা : মিরপুর পূর্ব থানার উদ্যোগে রাজধানীর একটি মিলনায়তনে দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়। অনুষ্ঠানে দোয়া ও মোনাজাত পরিচালনা করে ঢাকা মহানগরীর কর্মপরিষদ সদস্য ও থানা আমীর মাহফুজুর রহমান। উপস্থিত ছিলেন মহানগরীর শূরা সদস্য ও থানা সেক্রেটারি আহমদ জুবায়ের, আব্দুল্লাহ মিতুল, কামাল হোসেন ও আনিসুর রহমান জামায়াত নেতা মুতাকাব্বির, জসিম উদ্দীন ও তুহিন প্রমুখ।
মিরপুর (পশ্চিম) থানা : রাজধানীর মিরপুরে দোয়া অনুষ্ঠানের আয়োজন করে জামায়াতে ইসলামী মিরপুর (পশ্চিম) থানা। দোয়া অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন জামায়াতে ইসলামী ঢাকা মহানগরী শূরা সদস্য নজরুল ইসলাম আকন্দ, জাহাঙ্গীর কবির, এ. কে.এম. রোকন উদ্দিন, মাহফুজুর রহমান বুলবুল, তাজুল ইসলাম প্রমুখ।
 
ভাষানটেক থানা : রাজধনীর ভাষানটেকে দোয়া অনুষ্ঠানের আয়োজন করে জামায়াতে ইসলামীর নেতাকর্মীরা। দোয়া অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন ভাষানটেক থানা সেক্রেটারী আলাউদ্দীন, ইকলাব হোসেন, আব্দুর রহিম, শাহ আলমসহ আরো অনেকে।
কদমতলী (পূর্ব) থানা : দোয়া অনুষ্ঠানের আয়োজন করে জামায়াতে ইসলামী কদমতলী (পূর্ব) থানা। এতে দোয়া পরিচালনা করেন থানা আশীর মাওলানা মীরবাহার আমিরুল ইসলাম। দোয়া অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন থানা সেক্রেটারিসহ ওয়ার্ড ও ইউনিট দায়িত্বশীলগণ।
পল্লবী থানা : সকাল ৭টায় পল্লবী থানা জামায়াতের উদ্যোগে দোয়া অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। দোয়া অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন পল্লবী থানা আমীর আশরাফুল আলম, থানা সেক্রেটারি নৌশাদ আলম, থানা কর্মপরিষদ সদস্য সাইফুল কাদের, জামায়াত নেতা রাইসুল ইসলাম পবনসহ থানা ও ওয়ার্ড পর্যায়ের নেতৃবৃন্দ।
 
কলাবাগান থানা : দোয়া অনুষ্ঠানের আয়োজন করে জামায়াতে ইসলামী কলাবাগান থানা। থানা সেক্রেটারি আবু জয়নবের পরিচালনায় উক্ত দোয়া অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন আব্দুর রশিদ আমিন, নূর মোহাম্মদ ভূঁইয়া, শহীদুল ইসলাম, জাহিনূর রহমান, এস আই মাসুম ও মাঈন উদ্দিন প্রমুখ।
 
উত্তরা (পশ্চিম) থানা : উত্তরা পশ্চিম থানার উদ্যোগে এক দোয়া মাহফিলের আয়োজন করা হয়। থানা সেক্রেটারী আবদুল্লাহ রেজার পরিচালনায় দোয়া অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন উত্তরা জোন পরিচালক ও ঢাকা মহানগরীর কর্মপরিষদ সদস্য ইবনে কারিম আহমেদ মিঠু। দোয়া পরিচালনা করেন জোনের টিম মেম্বার এইচ এম আতিকুর রহমান। আমীরে জামায়াতের উপর স্মৃতি চারণ করে আলোচনা রাখেন মহানগরীর মজলিসে শুরার সদস্য এডভোকেট বেলায়েত হোসেন সুজা, উপস্থিত ছিলেন থানা কর্মপরিষদ সদস্য মোস্তাকিম আলম, ফরিদ হোসেন, ইঞ্জিনিয়ার ফারুক হোসেন ও ছাত্র শিবিরের থানা সেক্রেটারি জাহাঙ্গীর আলম প্রমুখ।
 
শেরে বাংলা নগর : দোয়া অনুষ্ঠানের আয়োজন করে জামায়াতে ইসলামী শেরে বাংলা নগর থানা জামায়াত। উপস্থিত ছিলেন এ জে এম কামাল উদ্দিন, মোহাম্মদ সোহেল খান, ইব্রাহিম পাটোয়ারি, আকতার হোসেন, আতিকুর রহমান ও মুজাহিদুল ইসলাম প্রমুখ।
দক্ষিণ খান থানা: দক্ষিণখান থানার উদ্যোগে দোয়া অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। এতে প্রধান অতিথি ছিলেন জোন টিম সদস্য এইচ এম আতিকুর রহমান। সভাপতিত্ব করেন থানা সেক্রেটারি রুহুল আমিন। উপস্থিত ছিলেন জামায়াতে ইসলামী ঢাকা মহানগরী শূরা ও কর্মপরিষদ সদস্য নজরুল ইসলাম, ছাত্রনেতা ডা: জাকিরুল ইসলাম।
 
রূপনগর থানা : রূপনগর থানার ৭ নং ওয়ার্ডের উদ্যোগে আমীরে জামায়াতের মুক্তির জন্য দোয়া মাহফিলের আয়োজন করা হয়। উপস্থিত ছিলেন থানা সেক্রেটারি আবু হানিফ, কর্মপরিষদ সদস্য লিয়াকত হোসেন প্রমুখ।
কাফরুল থানা : দোয়া মাহফিলের আয়োজন করে জামায়াতে ইসলামী কাফরুল থানা। এতে উপস্থিত ছিলেন জামায়াতে ইসলামী ঢাকা মহানগরীর কর্মপরিষদ সদস্য আব্দুর রহমান মুসা, থানা আমীর আনোয়ারুল করিম, থানা সেক্রেটারি আবদুল মতিন, জামায়াত নেতা তৌফিকুল হক ও তৌহিদুর রহমান প্রমুখ।
 
দারুসসালাম থানা : থানা আমীর মোস্তাফিজুর রহমানের পরিচালনায় স্থানীয় একটি মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত দোয়া মাহফিলে উপস্থিত ছিলেন আবু রাইয়ান, মিজানুর রহমান, মাওলানা আলম আনসারী, নুরুজ্জামান, ডাক্তার রেজা ও রফিকুল ইসলাম প্রমুখ।
কোতোয়ালী থানা : সকাল সাড়ে ১১টায় দোয়া অনুষ্ঠানের আয়োজন করে কোতোয়ালী থানা জামায়াতের নেতাকর্মীরা। দোয়া মাহফিলে উপস্থিত ছিলেন থানা আমীর আবদুল্লাহ, থানা সেক্রেটারি এম আর আযাদ, জামায়াত নেতা এ কে গিয়াস উদ্দিন, আলমগীব হোসেন, আহাদ উল্লাহ, হাফেজ ইব্রাহিম, ডা. আবু নাযিম, নূরে আলম, আহাদুল্লাহ, আবু বকর, যিললুর রহমান, বেলাল হোসেন ও শাহজাহান প্রমুখ।
কামরাঙ্গীরচর থানা : কামরাঙ্গীরচর থানার উদ্যোগে সকালে এক দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়। দোয়া ও মোনাজাত পরিচালনা করেন থানা আমীর মাহমুদুল হাসান। উপস্থিত ছিলেন থানা সেক্রেটারি মাওলানা নূরুল ইসলাম। জামায়াত নেতা সাহাব উদ্দিন, এম আলী, ফারুক হোসেন ও ছাত্রনেতা হামিদুল্লাহ প্রমুখ।
বংশাল থানা : বংশাল থানার উদ্যোগে দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়। উপস্থিত ছিলেন থানা আমীর আজমল হোসেন, জামায়াত নেতা মাওলানা আবু সাদ, মাওলানা আব্দুর রহমান, মাওলানা মোফাজ্জল হোসেন, মাওলানা মনির মিজি, মাওলানা আব্দুস সামাদ ও মাওলানা সাদেক উল্লাহ প্রমুখ। 
 
যাত্রাবাড়ী পূর্ব থানা : কামনায় দোয়া অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন থানা আমীর নিজামুল হক, সেক্রেটারি শাহজাহান খান, আব্দুল করিম, কবির হোসেন ও জাফরুল্লাহ মুন্সি প্রমুখ।
 
সবুজবাগ থানা : সবুজবাগ থানা আমীর আবু নাবিলের সভাপত্বিতে ও থানা সেক্রেটারি আব্দুল বারির পরিচালনায় মাওলানা মতিউর রহমান নিজামীর মুক্তির জন্য দোয়া মাহফিলে প্রধান অতিথি ছিলেন মহানগর কর্মপরিষদ সদস্য আবু ফাহিম। উপস্থিত ছিলেন থানা কর্মপরিষদ সদস্য আবু নোমান, হাফিজুর রহমান ও ছাত্রনেতা হাফিজ প্রমুখ।
 
তুরাগ থানা : তুরাগ থানার উদ্যোগে দোয়া মাহফিলের আয়োজন করা হয়। থানা আমীর মেসবাহ উদ্দিন নাঈমের সভাপতিত্বে ও থানা সেক্রেটারি মোল্লার পরিচালনায় উক্ত দোয়া অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন ঢাকা মহানগরী শূরা সদস্য উত্তরা জোন টিম সদস্য আতিকুর রহমান। উপস্থিত ছিলেন ইসলামী ছাত্রশিবির তুরাগ থানার সভাপতি বোরহান উদ্দিন সুমন, শূরা সদস্য হান্নান পাটোয়ারী, ওয়ার্ড সভাপতি সাইফুর রহমান, আবু হানিফ, বিল্লাল হোসেন, কেরামত আলী, মনির হোসেন, আলী হোসেন ও মাহফুজুর রহমান প্রমুখ।
বিমানবন্দর থানা : বিমান বন্দর থানার উদ্যোগে দোয়া মাহফিলের আয়োজন করা হয়। দোয়া অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন ঢাকা মহানগরী শূরা ও কর্মপরিষদ সদস্য উত্তরা জোন পরিচালক ইবনে কারীম আহমেদ। উপস্থিত ছিলেন থানা আমীর আবু ফারহান মোঃ মুহিব, থানা সেক্রেটারি মোঃ ইব্রাহিম খলিল, এনামুল হক শিপন, সাব্বির সওদাগর, আবুল হাসেম ও সামিম হোসেন প্রমুখ।
রূপনগর থানা : বাদ জুমা রূপনগর থানার ৯২ নং ওয়ার্ডের উদ্যোগে দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়। দোয়া মাহফিলে সভাপতিত্ব করেন কর্মপরিষদ সদস্য মো: সাইফুল ইসলাস। উপস্থিত ছিলেন থানা আমীর নাসির উদ্দিন, সেলিম হোসেন ও নজরুল ইনলাম প্রমুখ।
শাহ আলী থানা : জুমা বাদ আব্দুল কাদের মোল্লা মিলনায়তনে দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়। উপস্থিত ছিলেন থানা আমীর মুঃ মিজানুল হক, সেক্রেটারি আহমাদ হাসনাত রবি, কর্মপরিষদ সদস্য নবী আনোয়ার, রিয়াদুল সাত্তার তূর্য, সাইদ উল্লাহ, আলী ফরহাদ, ওয়ার্ড সভাপতি এ, ইকবাল মোতাহার, আব্দুল সরকার আলিফ, মোল্লা সুলাইমান, আবু এম মাহফুজ ও আলাউদ্দিন খান প্রমুখ।
সূত্রাপুর থানা : সূত্রাপুর থানার উদ্যোগে সকালে এক দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়। দোয়া ও মোনাজাত পরিচালনা করেন থানা আমীর আবু সাকিব। উপস্থিত ছিলেন থানা সেক্রেটারি এম.এম. শোয়েব, কর্মপরিষদ সদস্য হারিছ উদ্দিন, রফিকুল ইসলাম, আব্দুল্লাহ আল মাহমুদ, বাবুল, মিজানুর রহমান ও আব্দুল কুদ্দুস প্রমুখ।
 
ভাটারা থানা : ভাটারা থানার সকল ওয়ার্ডে দোয়া অনুষ্ঠিত হয়। থানায় দোয়া পরিচালনা করেন থানা সেক্রেটারি আবুল বাশার খান। প্রধান অতিছি ছিলেন থানা আমীর আবু আম্মার। উপস্থিত ছিলেন থানা কর্মপরিষদ সদস্য আনোয়ারুল হক মোল্লা, সিরাজুল ইসলাম, আশরাফুল হকসহ সর্বস্তরের নেতাকর্মীরা।
 
মতিঝিল থানা : সকাল ১১টায় জামায়াতে ইসলামী মতিঝিল থানার উদ্যোগে দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়। এতে দোয়া পরিচালনা করেন মহানগরী মজলিসে শূরা সদস্য ও থানা আমীর কামাল হোসাইন। উপস্থিত ছিলেন থানা নায়েবে আমীর সফি উল্লাহ, থানা সেক্রেটারি সুজন, থানা কর্মপরিষদ সদস্য এম এস বারী, এইচ রহমান ও জামায়াত নেতা জসিমুল হক পাটোয়ারি প্রমুখ।
গুলশান থানা : গুলশান থানার উদ্যোগে দোয়া মাহফিলের আয়োজন করা হয়। গুলশান থানা সেক্রেটারি আবু জুনায়েদ দোয়া অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন। উপস্থিত ছিলেন থানা কর্মপরিষদ সদস্য আবুল হাসেম ও প্রভাষক মু. উসমান জামান, ১৯ উত্তর ওয়ার্ড সভাপতি মাসুম বিল্লাহ প্রমুখ। এছাড়াও ছিলেন ইঞ্জিনিয়ার কামরুজ্জামান, ইঞ্জিনিয়ার নজরুল ইসলাম, আবু বকর সিদ্দিক লেবুসহ প্রায় ৩০ জন নেতাকর্মী।
ক্যান্টনমেন্ট থানা : ক্যান্টনমেন্ট থানার উদ্যোগে নগরীতে দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়। দোয়া মাহফিলে উপস্থিত ছিলেন থানা আমীর ইঞ্জিনিয়ার নাজিম উদ্দীন মোল্লা, সেক্রেটারি আবদুস সাকী, জামায়াত নেতা মাওলানা সিরাজুল ইসলাম, মীর আবুল কালাম ও ক্যাপ্টেন (অব.) মোবারক আলী প্রমুখ।
 
বনানী থানা : বনানী থানার উদ্যোগে নগরীতে দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়। দোয়া মাহফিলে উপস্থিত ছিলেন জামায়াত নেতা সাইফুল ও মাহমুদুল হাসানসহ জামায়াত নেতৃবৃন্দ।
তেজগাঁও শিল্পাঞ্চল থানা : তেজগাঁও শিল্পাঞ্চল থানার উদ্যোগে নগরীতে দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়। দোয়া মাহফিলে উপস্থিত ছিলেন থানা আমীর হাফেজ মিজানুর রহমান, সেক্রেটারি হাফেজ আহসান উল্লাহসহ জামায়াত নেতৃবৃন্দ।
চকবাজার থানা : চকবাজার থানার উদ্যোগে নগরীতে দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়। দোয়া মাহফিলে উপস্থিত ছিলেন জোন পরিচালক ইঞ্জিনিয়ার গোলাম মোস্তফা, কোতোয়ালী থানা আমীর আবু আব্দুল্লাহ, বংশাল থানা আমীর আজমল, লালবাগ থানা আমীর, কামরাঙ্গীরচর আমীর ও চকবাজার আমীর আল আমীন প্রমুখ। 
 
রাজশাহী অফিস : জামায়াতে ইসলামী রাজশাহী মহানগরীর প্রফেসর এম আবুল হাশেম বলেছেন, জামায়াতে ইসলামীর আমীর মাওলানা মতিউর রহমান নিজামীর বিরুদ্ধে ফাঁসির রায় ঘোষণায় সারা দেশে ইসলামপ্রিয় ধর্মানুরাগী সাধারণ জনতা বিক্ষোভে ফেটে পড়ে। সারা দেশে হাজার হাজার উত্তাল জনতা রাস্তায় এসে বিক্ষোভ করে। রাজশাহীতে ঢাকা বাস টার্মিনালের সামনে থেকে শান্তিপূর্ণ বিক্ষোভ শেষে বাড়ি ফেরার পথে জামায়াত-শিবিরের কর্মীদের গ্রেফতার করে নির্মম নির্যাতন করে রাজশাহী মেডিকেলে ভর্তি করে। তিনি বলেন, সরকার পুলিশ, র্যা ব ও বিজিবিকে দিয়ে যে নারকীয় কর্মকা- চালিয়ে যাচ্ছে তা মানবতাবিরোধী অপরাধকে হার মানিয়েছে। আমরা এর নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাই। তিনি গতকাল শুক্রবার দেশব্যাপী মাওলানা মতিউর রহমান নিজামীর ষড়যন্ত্রমূলক রায় থেকে মুক্তি কামনায় দোয়া দিবসের কর্মসূচির অংশ হিসেবে রাজশাহী মহানগরী আয়োজিত দোয়া মাহফিলে সভাপতির বক্তব্যে এসব কথা বলেন। দোয়া মাহফিলে আরো উপস্থিত ছিলেন মহানগরীর কর্মপরিষদ ও শূরা সদস্যবৃন্দ। তিনি আরো বলেন, শহীদ করে ইসলামী আন্দোলন বন্ধ করা যায় না। বরং আন্দোলন আরো জোরদার হয়। শহীদদের শোককে শক্তিতে পরিণত করে সরকারের এই জুলুমের বিরুদ্ধে জনগণকে সচেতন এবং আল্লাহর বাণী, রাসুলের (সা.) আদর্শকে মানুষের মাঝে তুলে ধরতে হবে। সরকার পুলিশ, র্যা ব, বিজিবি দিয়ে জনতার এ আন্দোলন দমাতে পারবে না। এ রায় দেশবাসী মানে না। নিজামীর মুক্তি ও আহতদের সুস্থতা কামনা করে দোয়া পরিচালনা করেন মুহতারাম মহানগরীর আমীর। এছাড়া নগরীর বোয়ালিয়া, রাজপাড়া, মতিহার, শাহমখদুম ও পবা থানার উদ্যোগে এবং মহানগরীর ওয়ার্ড ও ইউনিয়নের মসজিদে মসজিদে দোয়ার এ কর্মসূচি পালন করা হয়।
 
গোদাগাড়ী (রাজশাহী) সংবাদদাতা : জামায়াতে ইসলামীর আমীর বিশিষ্ট ইসলামী চিন্তাবিদ ও সাবেক সফল মন্ত্রী মাওলানা মতিউর রহমান নিজামীর মুক্তি কামনায় গোদাগাড়ীতে জামায়াতের গোদাগাড়ী পৌর শাখার উদ্যোগে দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত। দোয়ার পূর্বে বক্তব্য রাখেন রাজশাহী জেলা জামায়াতের আমীর অধ্যাপক আব্দুল খালেক, সহকারী সেক্রেটারি ও গোদাগাড়ী পৌর জামায়াতের সভাপতি আব্দুল খালেক, মাওলানা গোলাম মুর্ত্তুজা, মাওলানা নাজির আহম্মেদ প্রমুখ। বক্তারা বলেন, ইসলামী আন্দোলন দমন করার উদ্দেশ্যে সরকার একের পর এক মিথ্য অভিযোগ দিয়ে জামায়াতে ইসলামীর নেতাদের হত্যার ষড়যন্ত্র করছে। এরই অংশ হিসেবে মাওলানা নিজামীর রিভিউ আবেদন খারিজ করে তাকে হত্যার ষড়যন্ত্র করছে। অনতিবিলম্বে মিথ্যা অভিযোগ প্রত্যাহার করে মাওলানা নিজামীর মুক্তির দাবি করেন। উক্ত দোয়া মাহফিলে মোনাজাত পরিচালনা করেন জেলা আমীর অধ্যাপক আব্দুল খালেক।
 
চট্টগ্রাম অফিস : জামায়াতে ইসলামী চট্টগ্রাম মহানগরী নেতৃবৃন্দ বলেছেন, বালাকোটের শহীদদের চেতনায় আমাদের ময়দানে ঝাঁপিয়ে পড়তে হবে। জামায়াত নেতৃবৃন্দকে হত্যা করে আওয়ামী লীগ দেশ থেকে ইসলামকে নিশ্চিহ্ন করতে চায়। জামায়াতের আমীর মাওলানা নিজামীকে হত্যার ষড়যন্ত্র দেশবাসী মেনে নেবে না। কেন্দ্র ঘোষিত দোয়া দিবস উপলক্ষে নগর জামায়াতের প্রচার সম্পাদক মুহাম্মদ উল্লাহ বাকলিয়া থানা জামায়াতের দোয়া মাহফিলে উপরোক্ত কথা বলেন। 
বাকলিয়া থানা আমীর এম.এ. নিয়াজের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত দোয়া মাহফিলে অন্যান্যের মধ্যে অংশ নেন বুলবুল ইসলাম, নুর আহমদ, মুহাম্মদ ইসহাক প্রমুখ। দোয়া মাহফিলে মাওলানা মতিউর রহমান নিজামীর মুক্তির জন্য মোনাজাত পরিচালনা করেন, নগর প্রচার সম্পাদক মুহাম্মদ উল্লাহ।
 
ডবলমুরিং থানার উদ্যোগে দোয়া মাহফিল জামায়াত নেতা এম.এ লোকমানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত হয়। উক্ত দোয়া মাহফিলে প্রধান অতিথি ছিলেন, নগর জামায়াতের কর্মপরিষদ সদস্য ডা. মুহাম্মদ ছিদ্দিকুর রহমান। উপস্থিত ছিলেন জামায়াত নেতা এম.এ. সবুর ও মোস্তাক আহমদ প্রমুখ।
চান্দগাঁও থানা জামায়াতের উদ্যোগে দোয়া দিবস উপলক্ষে আয়োজিত দোয়া মাহফিল জামায়াত নেতা আবু জাওয়াদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত হয়। এতে উপস্থিত ছিলেন জামায়াত নেতা মুহাম্মদ ইবনে হোসাম, আবু নাহিদ ও আব্দুল্লাহ ইবনে জলিল প্রমুখ।
কোতোয়ালী উত্তর সাংগঠনিক থানা আয়োজিত দোয়া মাহফিল জামায়াত নেতা আবুল কাসেমের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত হয়। এতে উপস্থিত ছিলেন জামায়াত আমীর হোসাইন, এডভোকেট এহতেসামুল হক ও মোহাম্মদ নাজিম উদ্দিন প্রমুখ।
এছাড়াও কোতোয়ালী দক্ষিণ, পাঁচলাইশ, হালিশহর, ইপিজেড ও আকবরশাহ থানাসমূহের উদ্যোগে মাওলানা মহিউর রহমান নিজামীর মুক্তির জন্য দোয়া মাহফিল ও মোনাজাত এবং বাংলাদেশে ইসলামিক একাডেমি (বিআইএ) জামে মসজিদের খতিব মাওলানা শফি উদ্দিন আল মাদানীর পরিচালনায় দোয়া ও মোনাজাত অনুষ্ঠিত হয়।
 
চট্টগ্রাম দক্ষিণ : জামায়াতে ইসলামীর আমীর, সাবেক মন্ত্রী, আন্তর্জাতিক খ্যাতিসম্পন্ন ইসলামী চিন্তাবিদ, প্রখ্যাত আলেমে দ্বীন ও ২০ দলীয় জোটের অন্যতম শীর্ষ নেতা মাওলানা মতিউর রহমান নিজামীকে সরকার পরিকল্পিতভাবে হত্যার ষড়যন্ত্রের প্রতিবাদে কেন্দ্র ঘোষিত কর্মসূচির অংশ হিসেবে জামায়াতে ইসলামী চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলার আওতাধীন শাখাসমূহের উদ্যোগে প্রায় ২০০ শতাধিক স্থানে তার মুক্তি কামনা করে দোয়া করা হয়। 
 
প্রধান প্রধান দোয়া অনুষ্ঠানগুলোতে যারা উপস্থিত ছিলেন : বাঁশখালী উপজেলা শাখা আয়োজিত দোয়া অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন বাঁশখালী উপজেলা আমীর অধ্যক্ষ মাওলান জহিরুল ইসলাম, ইঞ্জিনিয়ার শহীদুল মোস্তফা, আবদুর রহিম ছানুবী, অধ্যক্ষ মুহাম্মদ ইছমাইল প্রমুখ। বোয়াখালীতে অনুষ্ঠিত দোয়া মাহফিলে উপস্থিত ছিলেন মাওলানা মুহাম্মদ কামাল উদ্দিন, ডা. খোরশেদুল আলম, ছিদ্দিক আহমদ, মুহাম্মদ হারুন প্রমুখ। আনোয়ারায় অনুষ্ঠিত দোয়া অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন আবদুল গণি, মাওলানা মহিউদ্দিন, আশরাফুল ইসলাম প্রমুখ। কর্ণফুলী থানার উদ্যোগে আয়োজিত দোয়া মাহফিলে উপস্থিত ছিলেন থানা আমীর মাওলানা মুহাম্মদ ইছমাইল হক্কানী, মুনিরুল আবছার, মুহাম্মদ ইবরাহীম প্রমুখ। পটিয়া উপজেলার উদ্যোগে আয়োজিত মাহফিলে উপস্থিত ছিলেন এস.এম. নাছির উদ্দিন, মোজাফ্ফর আহমদ, নাজিম উদ্দিন প্রমুখ। লোহাগাড়ার পদুয়ায় অনুষ্ঠিত দোয়া মাহফিলে মাওলানা আবুল কালামসহ অসংখ্য ইসলামী আন্দোলনের কর্মী ও সমর্থকগণ উপস্থিত ছিলেন।
দোয়া মাহফিলে নেতৃবৃন্দ এ ধরনের নিবর্তনমূলক ও ষড়যন্ত্রমূলক হত্যাকা- থেকে সরকারকে বিরত থাকার অনুরোধ জানান। সাথে সাথে ইসলামী আন্দোলনের অতীত ইতিহাস থেকে শিক্ষা গ্রহণ করে সর্বস্তরের জনশক্তিকে ধৈর্য ও সবরের মাধ্যমে ইসলামী আন্দোলনের কাজ চালিয়ে যাবার জন্য আহ্বান জানান। বিজ্ঞপ্তি।
খুলনা অফিস : জামায়াতে ইসলামীর আমীর, সাবেক মন্ত্রী, আন্তর্জাতিক খ্যাতিসম্পন্ন ইসলামী চিন্তাবিদ ও ২০ দলীয় জোটের অন্যতম শীর্ষ নেতা মাওলানা মতিউর রহমান নিজামীর মুক্তির জন্য কেন্দ্র ঘোষিত কর্মসূচির অংশ হিসেবে গতকাল শুক্রবার জামায়াতে ইসলামী খুলনা মহানগরী শাখার উদ্যোগে নগরীতে দোয়া ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।
 
দোয়া অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন কেন্দ্রীয় মজলিসে শূরা সদস্য ও খুলনা মহানগরী সেক্রেটারি অধ্যাপক মাহফুজুর রহমান। এ সময় উপস্থিত ছিলেন মোঃ আবুল বাশার, আবু মাহির, আবু মাহবুব, আব্দুল আওয়াল, মোঃ আবু হানিফ প্রমুখ।
নেতৃবৃন্দ বলেন, মাওলানা মতিউর রহমান নিজামীকে হত্যার মাধ্যমে সরকার শুধু জামায়াতে ইসলামীকেই নেতৃত্বশূন্য করতে চায় না, বরং একজন গণতান্ত্রিক জাতীয় নেতৃত্ব থেকে দেশকে বঞ্চিত করতে চায়। আমরা বিশ্বাস করি একের পর এক নেতৃবৃন্দকে হত্যা করে ইসলামী আদর্শকে হত্যা করা যাবে না। মাওলানা মতিউর রহমান নিজামীসহ শহীদ নেতৃবৃন্দের সহকর্মীরা হত্যার বদলে হত্যা নয়, ইসলামী আদর্শ বাস্তবায়ন করেই এই নির্মম হত্যাকাণ্ডের বদলা নেবে ইনশাআল্লাহ।
নেতৃবৃন্দ আরও বলেন, এটা সর্বোচ্চ আদালতের রায়। এটা নিয়ে আমাদের কোনো মন্তব্য নেই। তবে তৈরি ও শেখানো সাক্ষীর ভিত্তিতে মাওলানা নিজামীকে সাজা দেয়া হয়েছে। সাক্ষীদের সেইফ হোমে রেখে শিখিয়ে-পড়িয়ে তাদের সাক্ষীর ভিত্তিতে এ সাজা দেয়া হচ্ছে। যে জঘন্য অপরাধের সাথে আমীরে জামায়াত মাওলানা মতিউর রহমান নিজামীকে সম্পৃক্ত করা হয়েছে সে ব্যাপারে সরকার একবিন্দু অপরাধ প্রমাণ করতে পারেনি। প্রচলিত আইনে বিচার হলে মাওলানা নিজামীর বিরুদ্ধে মানবতাবিরোধী অপরাধের কোনো অভিযোগই প্রমাণিত হতো না। তাই অবিলম্বে মাওলানা মতিউর রহমান নিজামীকে নিঃশর্ত মুক্তি দিন।
 
ফরিদপুর সংবাদদাতা : বিশ্ববরেণ্য আলেম, সাবেক মন্ত্রী, জামায়াতে ইসলামীর আমীর মাওলানা মতিউর রহমান নিজামীর মুক্তির জন্য মহান আল্লাহর রহমত কামনায় জামায়াতে ইসলামী ফরিদপুর পৌরসভা শাখার উদ্যোগে শহীদ আলী আহসান মুহাম্মদ মুজাহিদের স্মৃতি বিজড়িত আদর্শ একাডেমি মসজিদে এক দোয়া মাহফিল ফরিদপুর পৌরসভা আমীর ইমতিয়াজ উদ্দিন আহমদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত হয়। বাদ জুমা অনুষ্ঠিত দোয়া কর্মসূচিতে সংক্ষিপ্ত বক্তব্য রাখেন জামায়াতের ফরিদপুর অঞ্চল সহকারী শামসুল ইসলাম আল বরাটী, ফরিদপুর জেলা আমীর প্রফেসর আঃ তাওয়াব, জেলা সেক্রেটারি মুহাম্মদ বদরুদ্দিন।
 
বক্তারা বলেন, বিচার কার্যক্রমকে প্রভাবিত করে, মিথ্যা ও সাজানো সাক্ষীর ভিত্তিতে বরেণ্য একজন আলেম ও সাবেক মন্ত্রীকে হত্যা করার ষড়যন্ত্র করছে সরকার। যার পরিণাম ভালো হবে না। আওয়ামী সরকার বাংলাদেশকে রক্তাক্ত দেশে পরিণত করেছে। চিরদিন ক্ষমতায় থাকার মোহে একের পর এক আধিপত্যবাদবিরোধী দেশপ্রেমিক, সৎ ও ইসলামী নেতৃবৃন্দকে হত্যা করছে। অবিলম্বে মাওলানা নিজামীকে মুক্তি দিয়ে আওয়ামী লীগকে হত্যার রাজনীতি থেকে বের হয়ে গঠনমূলক রাজনীতিতে মনোযোগী হতে আহ্বান জানায়।
দোয়া পরিচালনা করেন শহীদ আলী আহসান মুহাম্মদ মুজাহিদের বড় ভাই জেলা নায়েবে আমীর আলী আফজাল মোঃ খালেছ। বিজ্ঞপ্তি।
গাজীপুর সংবাদদাতা : মাওলানা মতিউর রহমান নিজামীর মুক্তি কামনায় কেন্দ্র ঘোষিত কর্মসূচির অংশ হিসেবে গতকাল শুক্রবার গাজীপুর মহানগরের বিভিন্ন স্থানে দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়। বাসন থানা জামায়াত আয়োজিত দোয়া মাহফিলে মুনাজাত পরিচালনা করেন মহানগর আমীর ইবনে ফয়েজ। মুনাজাতের আগে থানা সেক্রেটারি মোস্তাক আহমেদের পরিচালনায় অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে সিটি আমীর বলেন, মাওলানা নিজামীর বিরুদ্ধে অভিযোগ সম্পূর্ণ ভিত্তিহীন। মিথ্যা ও শেখানো সাক্ষীর ভিত্তিতে তাকে সর্বোচ্চ সাজা দেয়া হয়েছে। তিনি অবিলম্বে অন্যায় রায় বাতিল করে মাওলানা নিজামীর মুক্তি দাবি করেন।
সকালে কাশিমপুর থানা জামায়াতের আয়োজনে থানা আমীর আবু সিনার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত দোয়া মাহফিলে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন ও মুনাজাত পরিচালনা করেন মহানগর জামায়াতের সেক্রেটারি খায়রুল হাসান। কোনাবাড়ী থানা জামায়াতের দোয়া মাহফিলে নগর জামায়াতের সহকারী সেক্রেটারি মুহাম্মদ হোসেন আলী, টঙ্গী থানা জামায়াতের দোয়া মাহফিলে নগর জামায়াতের সাংগঠনিক সেক্রেটারি আফজাল হোসাইন এবং কাউলতিয়া থানা জামায়াতের দোয়া মাহফিলে নগর জামায়াতের সেক্রেটারি খায়রুল হাসান প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন।
এছাড়া সকালে ইসলামী ছাত্রশিবির গাজীপুর মহানগরীর আয়োজনে এক দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়। ছাত্র নেতৃবৃন্দ মাহফিলে উপস্থিত ছিলেন।
সিরাজগঞ্জ সংবাদদাতা : গতকাল বাদ জু’মা কেন্দ্র ঘোষিত কর্মসূচির অংশ হিসেবে জামায়াতে ইসলামী সিরাজগঞ্জ শহর শাখার উদ্যোগে একটি মসজিদে প্রবীণ রাজনীতিবিদ আব্দুছ ছালামের সভাপতিত্বে এক আলোচন সভা ও দোয়া মাহফিলের আয়োজন করা হয়। এতে প্রধান অতিথি ছিলেন শহর জামায়াতের অন্যতম নেতা বিশিষ্ট ইসলামী চিন্তবিদ পৌর জামায়াতের নায়েবে আমীর মাওলানা অধ্যাপক আব্দুল লতিফ, এছাড়া উপস্থিত ছিলেন জামায়াত নেতা আনোয়ার হোসেন প্রমুখ। প্রধান অতিথির বক্তৃতায় আব্দুল লতিফ বলেন, বর্তমান সরকার তার ক্ষমতাকে স্থায়ীকরণ ও অবৈধভাবে আঁকড়ে থাকার মানসিকতায় জামায়াতসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক নির্দোষ প্রহসনের বিচারের নামে একতরফা রায় দিয়ে ফাঁসি কার্যকর করছে। যা আন্তর্জাতিকভাবে দেশের ভাবমর্যাদা ক্ষুণœ করছে। তিনি বলেন, পুলিশের ওপর নির্ভর করে কোন সরকার চিরদিন ক্ষমতায় থাকে না। এই জুলুমবাজ সরকারকে একদিন জনতার কাঠগড়ায় দাঁড়াতে হবে। যেদিন জনগণ ঘুরে দাঁড়াবে সেদিন সরকার পালাবার পথ খুঁজে পাবে না। আলোচনা শেষে উপস্থিত মুসল্লিদের নিয়ে এক দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়। এ সময় এক হৃদয়বিদারক দৃশ্যের সৃষ্টি হয়। 
রংপুর : জামায়াতে ইসলামীর আমীর সাবেক মন্ত্রী মাওলানা মতিউর রহমান নিজামীর মুক্তির উদ্দেশ্যে মহান আল্লাহ রাব্বুল আলামীনের দরবারে রংপুর মহানগর জামায়াতের সকল সাংগঠনিক থানায় পৃথক পৃথক দোয়া মাহফিল ও সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। 
রংপুর মহানগর মাহিগঞ্জ সাংগঠনিক থানার দোয়া মাহফিলে মহানগর আমীর অধ্যাপক মাহবুবুর রহমান বেলাল, রংপুর মহানগর কোতয়ালী সাংগঠনিক থানার দোয়া মাহফিলে মহানগর সেক্রেটারি অধ্যাপক রুহুল কুদ্দুস, রংপুর মহানগর পরশুরাম ও হাজিরহাট সাংগঠনিক থানার দোয়া মাহফিলে মহানগর নায়েবে আমীর শাহ মুহা: নূর হুসাইন প্রধান অতিথী হিসাবে উপস্থিত থেকে বক্তব্য পেশ করেন ও দোয়া পরিচালনা করেন।
 মাহীগঞ্জ সাংগঠনিক থানার দোয়া পূর্ব সমাবেশে উপস্থিত প্রধান অতিথীর বক্তব্যে রংপুর মহানগর আমীর অধ্যাপক মাহবুবুর রহমান বেলাল অবিলম্বে আমীরে জামায়াত, সাবেক সফল মন্ত্রী মাওলানা মতিউর রহমান নিজামীর মুক্তির জোর দাবি জানান।
মাহবুবুর রহমান বেলাল বলেন, একজন নিরপরাধ মানুষকে বর্তমান আওয়ামী বাকশালী অবৈধ সরকার সম্পূর্ণ অন্যায়ভাবে একজন প্রখ্যাত আলেমে দ্বীন, সৎ খোদাভীরু ব্যক্তি যিনি বাংলাদেশের তৌহিদী জনতার প্রানের স্পন্দন, বাংলাদেশের গণতন্ত্র পুনরুদ্ধার আন্দোলনের শীর্ষ নেতা, বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামীর আমীর তাকে হত্যা করার সজন্য পৃথিবীর সবচেয়ে জঘন্য চক্রান্তে মেতে উঠেছে। দেশের তৌহিদী জনগণ অবৈধ সরকারের এহেন ঘৃণ্য চক্রান্ত ও শতাব্দীর শ্রেষ্ট মিথ্যাচার মেনে নিবে না।
তিনি সরকারের প্রতি হুশিয়ারী উচ্চারণ করে বলেন, মাওলানা নিজামীর মতো আত্মত্যাগী মানবতাবাদী সৎ খোদাভীরু মানুষকে অবৈধ ক্ষমতার মাধ্যমে খুন করে শহীদ করে বাংলার জমিন থেকে ইসলামের শ্বাশ্বত বিধান প্রতিষ্ঠার আন্দোলনকে নিশ্চিহ্ন করার দিবা স্বপ্ন বাংলার জমিনে বাস্তবায়ন হবেনা। মাওলানা নিজামীর আত্মত্যাগের মাধ্যমে মানবতার কল্যানে শ্বাশ্বত বিধান প্রতিষ্ঠার আন্দোলন আরো গতির সঞ্চার করবে ।
তিনি সরকারকে অবিলম্বে মাওলানা নিজামীকে মুক্তি দিয়ে ইসলামী ব্যক্তিত্বদের অবৈধ ক্ষমতার মাধ্যমে হত্যার সকল ষড়যন্ত্র থেকে সরে আসার আহ্বান জানান। অন্যথায় বাংলার তৌহিদী জনগণ তাদের প্রানপ্রিয় নেতা মাও: নিজামীকে মুক্ত করার জন্য যেকোন ত্যাগ স্বীকারে বদ্ধপরিকর।
দোয়া মুনাজাতে মহান আল্লাহর দরবারে মাওলানা নিজামীকে জালিমের কারাগার থেকে মুক্তির জন্য গায়েবি মদদ কামনা করেন।
দোয়া মাহফিল ও সমাবেশে অন্যান্যের মাঝে উপস্থিত ছিলেন মহানগর সহকারী সেক্রেটারি অধ্যাপক আনোয়ারুল ইসলাম, কোতয়ালী থানা আমীর এ্যাডঃ কাওছার আলী, মাহীগঞ্জ থানা আমীর আনোয়ারুল হক কাজল, পরশুরাম থানা আমীর মাওলানা নজরুল ইসলাম সিদ্দিকী, হাজিরহাট থানা আমীর ডাঃ লোকমান আলী, কোতয়ালী সেক্রেটারি গোলাম মোস্তফা প্রমুখ। প্রেস বিজ্ঞপ্তি।
সৈয়দপুর সংবাদাদা : কেন্দ্রীয় কর্মসূচি ন্যায় নীলফামারীর সৈয়দপুরে দোয়া মাহফিল আয়োজন করা হয়েছে। সরকার পরিকল্পিত ভাবে জামায়াতে ইসলামীর আমীর সাবেক মন্ত্রী ২০ দলীয় জোটের অন্যতম শীর্ষ নেতা মাওলানা মতিউর রহমান নিজামীকে হত্যার ষড়ন্ত্রের প্রতিবাদে জামায়াতে ইসলামী সৈয়পদুর শহর শাখা ও উপজেলা জামায়াতে ইসলামীর উদ্যোগে শুক্রবার দোয়ার আয়োজন করা হয়। দোয়া পরিচালনা করেন উপজেলা আমীর মাওলানা মাহমুদুল হাসান। এসময় আরও উপস্থিত ছিলেন, শহর নায়েবে আমীর গোলাম ফারুক, শহর আমীর হাফিজ আব্দুল মুনতাকিম, শহর সেক্রেটারি সরফুদ্দিন খান, উপজেলা সেক্রেটারি গাওহার আলী, শ্রম সম্পাদক ওয়াজেদ আলী প্রমুখ। 
দোয়া পরিচালনার করার সময় তারা বলেন নিজামী সাহেব রাজনীতির প্রতিহিংসার শিকার, সরকার ষড়যন্ত্র করে হত্যার চেষ্টা চলছে। নিজামী আদালতে ন্যায় বিচার পায়নি। এ সরকার মানুষ হত্যার খেলা খেলছে। আমরা আল্লাহতায়ালার দরবারে এ বিচার দাবি জানাই। বার বার ন্যায় বিচার থেকে নিরপরাদ মানুষকে বঞ্চিত করা চরম অমানবিকতা।
কুড়িগ্রাম সংবাদদাতা : জামায়াতে ইসলামীর আমীর মাওলানা মতিউর রহমান নিজামীর মুক্তি কামনা করে কুড়িগ্রাম শিবিরের দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত।
গতকাল শুক্রবার দুপুরে কুড়িগ্রামের একটি মিলনায়তনে বাংলাদেশ ইসলামী ছাত্রশিবির কুড়িগ্রাম জেলা শাখা আয়োজিত আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিলে প্রধান অতিথির আলোচনা রাখেন জেলা শিবিরের সভাপতি মোঃ শহিদুল ইসলাম। 
 
শিবিরের জেলা সেক্রেটারি জায়েউল ইসলাম জাহিদের পরিচালনায় আরো উপস্থিত ছিলেন জেলা ছাত্রকল্যান সম্পাদক মোঃ মাহবুবুর রহমান,কলেজ সভাপতি মোস্তাফিজুর রহমান, শহর সভাপতি মোঃ সফিকুল ইসলাম প্রমুখ। এ সময় বক্তারা বলেন, মাওলানা মতিউর রহমান নিজামী বাংলাদেশের এক জন সফল মন্ত্রী তাকে মিথ্যা মামলায় ফাঁসি দেওয়া হচ্ছে। তারা আরো বলেন, এ জনপ্রিয় নেতাকে ফাঁসিতে ঝুলিয়ে শহীদ করে দেয়া হলে আল্লাহর গজব নামবে। তারা অবিলম্বে নিজামীসহ সকল রাজবন্দীর মুক্তি দাবি করেন।
টাঙ্গাইল : জামায়াতে ইসলামীর আমীর মাওলানা মতিউর রহমান নিজামীর মুক্তি কামনায় টাঙ্গাইলে স্থানীয় একটি মিলনায়তনে শহর জামায়াতের উদ্যোগে দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়। শহর জামায়াতের আমীর অধ্যাপক মিজানুর রহমান চৌধুরীর সভাপতিত্বে ও সহকারী সেক্রেটারি অধ্যাপক শফিকুল ইসলামের পরিচালনায় প্রধান অথিতি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন টাঙ্গাইল জেলা আমীর আহসান হাবিব মাসুদ। অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন সাবেক জেলা আমীর অধ্যাপক মাওলানা আব্দুল হামিদ, অধ্যাপক এস.এম মনিরুজ্জামান প্রমুখ। প্রেস বিজ্ঞপ্তি।
 
বেলকুচি (সিরাজগঞ্জ) সংবাদদাতা : গতকাল শুক্রবার বেলকুচি পৌরসভা জামায়াতের উদ্যোগে কল্যাণপুরস্থ উপজেলা অস্থায়ী কার্যালয়ে কেন্দ্রীয় কর্মসূচি’র অংশ হিসেবে আমীরে জামায়াত মাওলানা মতিউর রহমান নিজামী’র আশু মুক্তি কামনায় এক আলোচনা সভা ও দো’য়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়। বেলকুচি পৌরসভা আমীর মাওলানা আবুল হোসাইন ভূঁইয়া’র সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত দো’য়া মাহফিলে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন, জেলা কর্মপরিষদ সদস্য ও বেলকুচি উপজেলা আমীর অধ্যাপক নূর-উর-নবী সরকার। বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন, উপজেলা নায়েবে আমীর অধ্যাপক মাওলানা গোলাম আযম্ । দো’য়া মাহফিলে আরো বক্তব্য রাখেন, পৌরসভা নায়েবে আমীর সাইদুল ইসলাম মোতাহার, সেক্রেটারি মাওলানা গোলাম সারোয়ার ও জামায়াত নেতা মাওলানা রফিকুল ইসলাম প্রমুখ। পরে এক মোনাজাতের মাধ্যমে মহান আল্লাহর সাহায্য কামনায় বিশেষ দো’য়া পরিচালনা করা হয়।
 
এদিকে কামারখন্দ উপজেলা’র উদ্যোগে ধোপাকান্দি মাদরাসা মিলনায়তনে এক আলোচনা সভা ও দো’আ মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়। উপজেলা আমীর মাওলানা সাখাওয়াত হুসাইন এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত দো’আ মাহফিলে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন,জেলা শু’রা ও কর্মপরিষদ সদস্য,বেলকুচি উপজেলা জামায়াতের সেক্রেটারি,বেলকুচি উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান আরিফুল ইসলাম সোহেল। দো’আ মাহফিলে আরো বক্তব্য রাখেন,কামারখন্দ উপজেলা সেক্রেটারি মাওলানা ইউসুফ আলী,জামায়াত নেতা মনিরুল ইসলাম,হাফেজ মাওলানা আব্দুল্লাহ্,আব্দুল জব্বার,আবু বক্কর ছিদ্দিক শিবলী,শিবির নেতা কামরুল হাসান, জাহিদুল ইসলাম ও সাকিব হোসাইন প্রমুখ।
সমাবেশে নেতৃবৃন্দ, হুসিয়ারি উচ্চারণ করে দ্রুত অবৈধ ট্রাইব্যুনাল বাতিল ও মাওলানা মতিউর রহমান নিজামী’র ফাঁসির দন্ডাদেশ স্থগিত করে আটক আমীরে জামায়াত মাওলানা নিজামী’র নিঃশর্ত মুক্তির দাবি করে মহান আল্লাহর দরবারে মোনাজাত করেন।
কক্সবাজার সংবাদদাতা : কেন্দ্র ঘোষিত দোয়া দিবসের অংশ হিসেবে আমীরে জামায়াত বরেণ্য ইসলামী চিন্তাবিদ ও বিশ্ব ইসলামী আন্দোলনের সিপাহসালার মাওলানা মতিউর রহমান নিজামীর সুস্থতা, দীর্ঘায়ু ও মুক্তি কামনায় গতকাল শুক্রবার কক্সবাজার জেলা জুড়ে বিশেষ দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়েছে। মুনাজাতে মহান আল্লাহর দরবারে প্রিয় নেতার মুক্তির চেয়ে কান্নায় ভেঙ্গে পড়েন অগণিত নেতাকর্মীসহ সর্বস্তরের জনসাধারণ। বিভিন্ন স্থানে অনুষ্ঠিত শত শত দোয়া মাহফিলে কান্নার রোল পড়ে যায় ফরিয়াদিদের মাঝে। 
কক্সবাজার শহর জামায়াতের আমীর অধ্যাপক আবু তাহের চৌধুরীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত দোয়া মাহফিলে মোনাজাত পরিচালনা করেন সংগঠনের কেন্দ্রীয় কর্মপরিষদ সদস্য ও কক্সবাজার জেলা আমীর মুহাম্মদ শাহাজাহান। এতে আরো উপস্থিত ছিলেন সহকারী সক্রেটারি আবদ্ল্লুাহ আল ফারুকসহ বিভিন্ন স্থরের নেতাকর্মীরা।
মুনাজাতে আমীরে জামায়াত মাওলানা মতিউর রহমান নিজামীর সুস্থতা, দীর্ঘায়ু ও মুক্তি কামনা করা হয়। দেশ-জাতির শান্তি কামনা ও জালিম সরকারের জুলুম-নির্যাতন থেকে সাধারণ মানুষকে মুক্তি এবং দেশ ও জাতিকে রক্ষা করার জন্য আল্লাহ রাব্বুল আলামীনের কাছে ফরিয়াদ জানানো হয় দোয়া ও মোনাজাত কর্মসূচিতে।
 
চকরিয়া সংবাদদাতা : চকরিয়ায় অনুষ্ঠিত দোয়া মাহফিলে দোয়া পরিচালনা করেন জামায়াতে ইসলামী উপজেলা উত্তর আমীর মাওলানা ছাবের আহম্মদ। এসময় পৌর সেক্রেটারি আরিফুল কবিরসহ স্থানীয় নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। চকরিয়ার আরো প্রায় ৬০টি মসজিদে আমীরে জামায়াত মতিউর রহমান নিজামীর জন্য দোয়া ও বিশেষ মুনাজাত করা হয়।
উখিয়া : আমীরে জামায়াত মাওলানা মতিউর রহমান নিজামীর সুস্থতা, দীর্ঘায়ু ও মুক্তি কামনায় উখিয়া উপজেলা আমীর মাওলানা আবুল ফজলের সভাপতিত্বে দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়। এতে দোয়া পরিচালনা করেন মাওলানা বেলাল হোসাইন। এসময় উপস্থিত ছিলেন হাজী আবুল কালাম, শামসুল আলম, মোহাম্মদ হোসাইন প্রমুখ। এছাড়াও উখিয়ার প্রায় ৩৫টি মসজিদে আমীরে জামায়াত মাওলানা মতিউর রহমান নিজামীর জন্য বিশেষ দোয়া ও মোনাজাত করা হয়।
মহেশখালী : উপজেলা আমীর জাহের হোসাইনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত দোয়া মাহফিলে মোনাজাত পরিচালনা করেন মাওলান ইসমাইল আজাদ। এসময় থানা সেক্রেটারি শামীম ইকবাল, কাজী মোতাহের হোসাইন, আবুল বশর, মাওলানা হাশেমসহ শতাধীক মুসল্লী উপস্থিত ছিলেন।
 
ঈদগাঁও : থানা আমীর মাওলানা সলিমউল্লাহ জিহাদীর সভাপতিত্বে দোয়া মাহফিলে মোনাজাত পরিচালনা করেন, মাওলানা মারুফুর রশিদ, আরো উপস্থিত ছিলেন মাস্টার নাজির আহম্মদ, মোঃ ইউসুফ, হাফেজ মনজুর আলম, আবুল কালামসহ শতাধিক মুসল্লী।
কক্সবাজার সদর : মাওলানা নিজামীর সুস্থতা, দীর্ঘায়ু ও মুক্তি কামনায় অনুষ্ঠিত দোয়া মাহফিলে মোনাজাত পরিচালনা করেন মাওলানা আবদুর রহমান। এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন শ্রমিকনেতা আবছার কামাল, রশিদ আহম্মদ, শফিক আহম্মদসহ বিভিন্ন স্থরের জনসাধারণ ও মুসল্লী।
 
পেকুয়াঃ উপজেলা আমীর মাস্টার আবুল কালামের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত দোয়া মাহফিলে মোনাজাত পরিচালনা করেন মাওলানা সরওয়ার আলম। এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন এডভোকেট হুমায়ুন কবির, আব্দুল হালিম প্রমুখ।
টেকনাফ : উপজেলা সেক্রেটারি মাওলানা আব্দুস সোবহানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত দোয়া মাহফিলে মোনাজাত পরিচালনা করেন মাওলানা খলিলূর রহমান। আরো উপস্থিত ছিলেন হাজী ছৈয়দ আলম, বিএসসি ফরিদ, নূর হোসাইনসহ বহু মুসল্লী। এছাড়া প্রায় ৫০টি মসজিদে বিশেষ দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়।
 
কুতুবদিয়া : উপজেলা জামায়াত আয়োজিত দোয়া মাহফিলে মোনাজাত পরিচালনা করেন মাওলানা নুরুল আমিন। এছাড়া দ্বীপ এলাকা কুতুবদিয়ায় প্রায় ৩০ টি মসজিদে মওলানা মতিউর রহমান নিজামীর জন্য বিশেষ দোয়া করা হয়। 
এছাড়াও জেলার প্রত্যন্ত অঞ্চলের বিভিন্ন মসজিদে, মাদ্রাসা ও এতিমখানায়, আমীরে জামায়াত মাওলানা মতিউর রহমান নিজামীর সুস্থতা, দীর্ঘায়ু ও মুক্তি কামনা কামনায় বিশেষ দোয়া ও মোনাজাত করা হয়।
এদিকে বিশ্বনন্দিত আলেমেদ্বীন মাওলানা নিজামীর নিঃশর্ত মুক্তির দাবিতে কেন্দ্র ঘোষিত আজ শনিবার বিক্ষোভ কর্মসূচি সফল করতে নেতাকর্মীসহ জেলাবাসীর উদার্ত্ত আহ্বান জানিয়েছেন কক্সবাজার জেলা জামায়াতের আমীর মুহাম্মদ শাহজাহান।
চাঁদপুর : চাঁদপুর শহর জামায়াতের উদ্যোগে দোয়া অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। গত শুক্রবার বিকেল ৫টায় নিজ কার্যালয় কেন্দ্রীয় কর্মসুচির অংশ হিসেবে আলোচনা সভা ও দোয়া অনুষ্ঠান পালন করা হয়। অনুষ্ঠানে অতিথির বক্তব্য রাখেন চাঁদপুর সদর উপজেলার ভাইস চেয়ারম্যান ও শহর জামায়াতের আমীর এড: শাহজাহান মিয়া। জামায়াতের শহরের মজলিজের শুরার সদস্য কাজী মুরাদ হোসেনের পরিচালনায় উপস্থিত ছিলেন মাও: হাবিব উল্যাহ, আব্দুল হক মোল্লা, মাও: আবু আহমেদ, মাও: হেফজুর রহমান, মাও: হুমাউন কবির প্রমুখ।
 
বরিশাল অফিস : জামায়াতে ইসলামীর আমীর মাওলানা মতিউর রহমান নিজামীর মুক্তি এবং তার সুস্থতা কামনায় কেন্দ্রঘোষিত দোয়া দিবস বরিশালে পালিত হায়েছে। বরিশাল মহানগর, জেলা ও থানাসংগঠনসহ সকল ওয়ার্ড ও ইউনিটে এ দোয়ার আয়োজন করা হয়। বরিশাল মহানগর নায়েবে আমীর অধ্যক্ষ আমিনুল ইসলাম খসরুর সভাপতিত্বে নগর জামায়াতের দোয়ার অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।
দোয়া পূর্ব সমাবেশে বক্তারা বলেন, বাংলাদেশ থেকে ইসলাম এবং ইসলামী আন্দোলনকে ধ্বংস করার এই নীল নকশা এই জালিম সরকার হাতে নিয়েছে। একদিন বাংলাদেশের মানুষ এই অন্যায় হত্যাকান্ডের প্রতিশোধ গ্রহণ করবে। আমরা সরকারকে এধরনের বিচারিক হত্যাকান্ড থেকে বিরত থেকে নিরাপরাধ নেতৃবৃন্দের নিঃশর্ত মুক্তি দাবি করছি। 
 
তারা আরো বলেন, ইসলামী আন্দোলনের সিপাহসালার আমীরে জামায়াতের মুক্তি না দিলে বাংলাদেশের তৌহিদি জনতা তাকে যেকোন মূল্যে জালিমের বন্দিশালা থেকে মুক্ত করবে। বক্তারা অবিলম্বে জামায়াতের আমীর মাও: নিজামীর মুক্তি দাবি জানান।
এদিকে মাওঃ মতিউর রহমান নিজামীর মুক্তির দাবি জানিয়ে বিবৃতি দিয়েছেন বরিশাল মহানগর ও জেলা জামায়াত নেতৃবৃন্দ। বিবৃতিদাতারা হলেন, জামায়াতের কেন্দ্রীয় কর্মপরিষদ সদস্য ও বরিশাল মহানগর জামায়াতের আমীর এ্যাডভোকেট মুয়াযযম হোসাইন হেলাল, পশ্চিম জেলা জামায়াতের আমীর অধ্যাপক মাওঃ হাবিবুর রহমান, পূর্ব জেলা জামায়াতের আমীর অধ্যাপক আবদুল জব্বার, মহানগর জামায়াতের নায়েবে আমীর অধ্যক্ষ আমিনুল ইসলাম খসরু ও আলহাজ¦ বজলুর রহমান বাচ্চু, সেক্রেটারি জহির উদ্দিন মু. বাবর।
জয়পুরহাট : মাওলানা মতিউর রহমান নিজামীর মুক্তি কামনায় কেন্দ্র ঘোষিত কর্মসূচির অংশ হিসেবে শুক্রবার জয়পুরহাটরে বিভিন্নস্থানে দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়েছে। জয়পুরহাট সদর জামায়াত আয়োজিত দোয়া মাহফিলে মুনাজাত পরিচালনা করেন সদর আমীর মাওলানা সাইফুল ইসলাম। মুনাজাতের আগে ইউপি আমীর লুৎফর রহমানের পরিচালনায় অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় বক্তব্যে বক্তারা বলেন, মাওলানা নিজামীর বিরুদ্ধে অভিযোগ সম্পুর্ণ ভিত্তিহীন। মিথ্যা ও শেখানো সাক্ষীর ভিত্তিতে তাকে সর্বোচ্চ সাজা দেয়া হয়েছে। তারা অবিলম্বে অন্যায় রায় বাতিল করে মাওলানা নিজামীর মুক্তি দাবি করেন। এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন ইউপি সেক্রেটারি মোফাজ্জল হোসেন, শিবিবিরের জেলা অফিস সম্পাদক মন্ডল সরকার, থানা সভাপতি রাসেল আহমেদ প্রমুখ। এ দিকে জেলার পাঁচবিবি কালাই ও আক্কেলপুরসহ বিভিন্ন স্থানে জামায়াতের দোয়া দিবস পালিত হয়েছে।
 
সিলেট ব্যুরো : বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামীর কেন্দ্রীয় কর্মপরিষদ সদস্য ও সিলেট মহানগরীর আমীর এডভোকেট এহসানুল মাহবুব জুবায়ের বলেছেন- শতকরা ৯০ ভাগ মুসলমানের এই বাংলাদেশে ইসলাম, ইসলামী আন্দোলন ও ইসলামী নেতৃত্ব চরম ক্রান্তিকাল অতিবাহিত করছে। আদর্শিকভাবে মোকাবেলায় ব্যার্থ হয়ে সরকার ইসলামী শক্তির উপর অন্যায় জুলুম অবিচার চালিয়ে যাচ্ছে। ইসলামী আন্দোলনকে নির্মূল করতেই বিশ্ব ইসলামী আন্দোলনের অন্যতম সাহসী সিপাহশালার সাবেক সফল শিল্পমন্ত্রী আমীরে জামায়াত মাওলানা মতিউর রহমান নিজামীকে বিচারের নামে হত্যার চুড়ান্ত ষড়যন্ত্র হচ্ছে।
 
তিনি গতকাল শুক্রবার জামায়াত কেন্দ্র ঘোষিত দেশব্যাপী দোয়া দিবস কর্মসুচীর অংশ হিসেবে আমীরে জামায়াত মাওলানা মতিউর রহমান নিজামী সহ জাতীয় নেতৃবৃন্দের মুক্তি কামনায় আয়োজিত দোয়া মাহফিল পুর্ব সংক্ষিপ্ত সমাবেশে সভাপতির বক্তব্যে উপরোক্ত কথা বলেন। নগরীতে বাদ আসর অনুষ্ঠিত দোয়া মাহফিল অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন- সিলেট মহানগর জামায়াতের সহকারী সেক্রেটারী মো: শাহজাহান আলী ও মো: আব্দুর রব, জামায়াত নেতা মাওলানা আব্দুল মুকিত, মু. আজিজুল ইসলাম, ইসলামী ছাত্র শিবির সিলেট মহানগর সভাপতি মাসুক আহমদ ও সেক্রেটারী আব্দুল্লাহ আল মাহমুদ প্রমুখ।
 
এছাড়াও রাজশাহী, বরিশাল, খুলনা, রংপুর, কুমিল্লা, গাজীপুর, নোয়াখালী, দিনাজপুর, ময়মনসিংহ, পাবনা, ফেনী, সিরাজগঞ্জ, ফরিদপুর, সাতক্ষীরা, ফরিদপু্‌র, নারায়াণগঞ্জ, বরগুনা, টাঙ্গাইল, মৌলভীবাজার, সুনামগঞ্জ, কক্সবাজার, ও দেশের আরো বিভিন্ন স্থানে মাওলানা নিজামীর মুক্তি কামনায় দোয়া কর্মসূচী অনুষ্ঠিত হয়।