Thursday, 21st January, 2021
Choose Language:

সর্বশেষ
সংবাদ
ইসলাম বিরোধী শিক্ষানীতি বাতিল এবং প্রস্তাবিত নীতিহীন শিক্ষা আইন প্রণয়ন করার প্রতিবাদে দেশব্যাপী শান্তিপূর্ণ বিক্ষোভ পালিত
৩০ মে ২০১৬, সোমবার,
বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামীর কেন্দ্রীয় মজলিশে শুরা সদস্য ড. মু. রেজাউল করিম বলেছেন, সরকার নীতি-নৈতিকতা বিবর্জিত শিক্ষা আইন প্রণয়ন করে দেশের শিক্ষাব্যবস্থাকে ধবংসের মুখোমুখী দাঁড় করিয়েছে। মূলত তারা কথিত শিক্ষা আইনের নামে জাতিকে নৈতিক অধঃপতন ও ধর্মহীনতার দিকে ঠেলে দিতে চায়। কিন্তু সচেতন জনতা সরকারের দেশ ও জাতিস্বত্ত্বাবিরোধী ষড়যন্ত্র কখনোই মেনে নেবে না বরং তীব্র প্রতিরোধ গড়ে তুলবে। তিনি  অবিলম্বে হঠকারিতা পরিহার করে গৃহীত শিক্ষানীতি ও প্রস্তাবিত শিক্ষা আইন বাতিল সরকারের প্রতি জোর দাবি  জানান। অন্যথায় সরকারকে গণরোষের মুখোমুখী হতে হবে। 

তিনি আজ রাজধানীতে সকাল ৮টায় কেন্দ্র ঘোষিত শান্তিপূর্ণ বিক্ষোভ কর্মসূচীর অংশ হিসাবে বর্তমান সরকারের গৃহীত শিক্ষানীতি বাতিলের দাবিতে এবং প্রস্তাবিত নৈতিকতা বিবর্জিত শিক্ষা আইনে প্রণয়নের প্রতিবাদে বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামী ঢাকা মহানগরী আয়োজিত এক বিক্ষোভ পরবর্তী সমাবেশে একথা বলেন। বিক্ষোভ মিছিলটি উত্তর বাড্ডা থেকে শুরু হয়ে নগরীর বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে সমাবেশের মাধ্যমে শেষ।  উপস্থিত ছিলেন ঢাকা মহানগরীর মজলিশে শুরা সদস্য নাজিম উদ্দীন মোল্লা ও সাইফুল ইসলাম, জামায়াত নেতা আব্দুল আউয়াল আজম, জিল্লুর রহমান, শেখ নেয়ামুল করিম ও শিবিরের ঢাকা মহানগরী উত্তরের সভাপতি তারক হাসান প্রমূখ।

ড. রেজাউল করিম বলেন, সরকারের ভ্রান্তনীতির কারণেই সমাজের সকল ক্ষেত্রেই নৈতিক অবক্ষয়ের জয়জয়কার  চলছে। রাষ্ট্রের সকল পর্যায় থেকে অবক্ষয় রোধ করাতে দেশের সংখ্যাগরিষ্ঠ মানুষের বোধ-বিশ্বাস, আবেগ-অনুভূতি ও লালিত স্বপ্ন ও মূল্যবোধের ভিত্তিতে শিক্ষা ব্যবস্থা সংস্কার সময়ের সবচেয়ে বড় দাবি হলেও সরকার উদ্দেশ্য প্রণোদিতভাবে তা না করে  শিক্ষার পাঠ্যসূচী ও কারিকুলাম থেকে ইসলাম, ইসলামী মূল্যবোধ ও চেতনা বাদ দিয়ে জাতিকে ধর্ম ও মূল্যবোধহীন করার ষড়যন্ত্র করা হচ্ছে। যা নতুন প্রজন্মকে আত্মপরিচয় সংকটে ফেলবে। কিন্তু দেশের ইসলামপ্রিয় ও সচেতন জনতা সরকারের সে ষড়যন্ত্র কোন ভাবেই মেনে নেবে না।  তিনি দেশের বৃহত্তর জনগোষ্ঠীর বোধ-বিশ্বাসের প্রতি সম্মান প্রদর্শন করে ইসলামের আদর্শ ও মূল্যবোধের ভিত্তিতে নতুন শিক্ষানীতি প্রণয়ন করে তা বাস্তবায়নের মাধ্যমে দেশ ও জাতিকে অবক্ষয়ের হাত থেকে রক্ষা করার জোর দাবি জানান।  অন্যথায় দেশপ্রেমী জনতাকে সাথে নিয়ে ফ্যাসীবাদী ও ইসলাম বিরোধী সরকারের বিরুদ্ধে গণপ্রতিরোধ গড়ে তোলা হবে।

মতিঝিল-পল্টন জোন
ধর্মহীন শিক্ষানীতি বাতিলের দাবিতে সকাল ৯ টায় মতিঝিল-পল্টন জোনের উদ্যোগে নগরীতে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। মিছিলটি শেগুনবাগিচা থেকে শুরু হয়ে নগরীর বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে সমাবেশের মাধ্যমে শেষ হয়। সমাবেশে বক্তব্য রাখেন ঢাকা মহানগরীর কর্মপরিষদ সদস্য এ্যাডভোকেট ড. হেলাল উদ্দীন। উপস্থিত ছিলনে মতিঝিল থানা আমীর কামাল হোসাইন,  শাহজাহানপুর থানা আমীর শামসুর রহমান, শিবিরের ঢাকা মহানগরী পূর্বের সভাপতি সোহেল রানা মিঠু, জামায়াতের মতিঝিল থানা সেক্রেটারি মোতাসিমবিল্লাহ, শাহজাহানপুর সেক্রেটরি সাইদুর রহমান ও ওয়ারি সেক্রেটারি প্রফেসর আব্দুস সালাম প্রমূখ।

সমাবেশে বক্তব্যে এডভোকেট ড. হেলাল উদ্দীন বলেন, সরকার দেশকে ধর্মহীন ও বর্বর রাষ্ট্রে পরিণত করার জন্য ধর্মহীন ও নীতি-নৈতিকতা বিবর্জিত শিক্ষানীতি জাতির ঘাড়ে চাপিয়ে দিয়েছে। তারা নতুন প্রজন্মকে ধর্মবিমুখ করে জাতিকে আত্মপরিচয়হীন করতে চায়। কিন্তু সচেতন জনতা সরকারের সে ষড়যন্ত্র কখনোই বাস্তবায়িত হতে দেবে না। তিনি সরকারকে ইসলাম বিরোধী ষড়যন্ত্র বন্ধ করে অবিলম্বে বিতর্কিত র্শিক্ষানীতি বাতিলের আহবান জানান। অন্যথায় সরকারের ষড়যন্ত্র মোকাবেলায় জনগণ রাজপথে নেমে আসবে।
 
মোহাম্মদপুর-আদাবর জোন
বিতর্কিত শিক্ষানীতি বাতিলের দাবি মোহাম্মদপুর-আদাবর জোন রাজধানীতে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশের আয়োজন করে। বিক্ষোভ মিছিলটি মোহাম্মদপুর কলেজ গেইট থেকে শুরু হয়ে নগরীর বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে সরকারি স্কুলের সামনে এসে সংক্ষিপ্ত সমাবেশের মাধ্যমে শেষ হয়। সমাবেশে বক্তব্য রাখেন ঢাকা মহানগরীর কর্মপরিষদ সদস্য মাওলানা দেলাওয়ার হোসাইন। উপস্থিত ছিলেন শিবিরের কেন্দ্রীয় কার্যকরী পরিষদ সদস্য শাহ মোঃ মাহফুজুল হক, ঢাকা মহানগরী জামায়াতের মজলিশে শুরা সদস্য শেখ শরীফ উদ্দীন আহমদ ও ডা. শফিউর রহমান, শিবিরের ঢাকা মহানগরী পশ্চিমের সভাপতি খালিদ মাহমুদ, জামায়াত নেতা আলী আকরাম মোঃ ওজায়ের, মোহাম্মদ আলী, আব্দুর রহমান, আব্দুল হান্নান, আখতারুজ্জামান, আব্দুল ওয়াজেদ, ছাত্রনেতা আব্দুল আলীম, মিজানুর রহমান, রবিউল ইসলাম, মোখলেছুর রহমান, মামুন ও সাকিব প্রমূখ।

সমাবেশে মাওলানা দেলাওয়ার হোসাইন বলেন, আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় আসলেই ইসলাম ও ইসলামী মূল্যবোধের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করে। সরকার বিতর্কিত শিক্ষানীতির মাধ্যমে জাতিকে মূল্যবোধ বিবর্জিত ধর্মহীন জাতিকে পরিণত করতে চায়। কিন্তু জনগণ সরকারের সে ষড়যন্ত্র সফল হবে দেবে না। তিনি সরকারের দেশ ও ইসলামবিরোধী ষড়যন্ত্র মোকাবেলায় সকলকে ঐক্যবদ্ধ হওয়ার আহবান জানান।

খিলগাঁও জোন
ইসলাামী বিরোধী শিক্ষানীতি বাতিলের দাবিতে খিলগাঁও জোনের উদ্যোগে সকাল ৮টায় বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। মিছিলটি রামপুরা থেকে শুরু হয়ে নগরীর বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে সমাবেশের মাধ্যমে শেষ হয়। সমাবেশে বক্তব্য রাখেন খিলগাঁও থানা আমীর আব্দুল্লাহ আল আমীন। উপস্থিত ছিলেন ভাটারা থানা আমীর আবু আম্মার, মুগদা থানা আমীর রিফাত, রামপুরা থানা সেক্রেটারি হাসান ঈমাম, সবুজবাগ থানা সেক্রেটারি আবু মাহী, শিবিরের মহানগরী সভাপতি সিয়াম আব্দুল্লাহ, কেন্দ্রীয় নেতা রাশেদুল হাসান রানা, খিলগাঁও থানা সভাপতি মুজিব মুজিবুর রহমান, জামায়াত নেতা শামীম, সরোয়ার, নাসির ও বি আমীন প্রমূখ।

উত্তরা জোন
বিতর্কিত শিক্ষানীতি বাতিলের দাবিতে সকল ৮.৩০ টায় উত্তরা জোনের উদ্যোগে মিছিল ও সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। মিছিলটি হাউস ব্লিডিং সংলগ্ন জয়নাল মার্কেট থেকে শুরু হয়ে বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে পথসভার মাধ্যমে শেষ হয়। সমাবেশে বক্তব্য রাখেন ঢাকা মহানগরীর মজলিশে শুরা সদস্য আবু ওমর। উপস্থিত ছিলেন দক্ষিণখান থানা আমীর এ্যাডভোকেট মনিরুল ইসলাম, উত্তরা পূর্ব থানা আমীর মাহবুবুর রহমান, খিলক্ষেত থানা আমীর মাওলানা হুসাইন আহমদ ও ছাত্রনেতা জামিল মাহমুদ প্রমূখ।

মিরপুর জোন
সকাল ৭.৪৫ টায় বিতর্কিত শিক্ষানীতি বাতিলের দাবিতে মিরপুর জোনের উদ্যোগে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। মিছিলটি ১০নং গোল চত্তর থেকে শুরু হয়ে নগরীর বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে সমাবেশের মাধ্যমে শেষ হয়। উপস্থিত ছিলেন মিরপুর পশ্চিম থানা আমীর, মিরপুর পূর্ব থানা আমীর, শাহ আলী থানা আমীর, রূপনগর থানা আমীর, পল্লবী থানা সেক্রেটারিসহ স্থানীয় নেতৃবৃন্দ।

যাত্রাবাড়ী জোন
সকাল ৮টায় বিতর্কিত শিক্ষানীতি বাতিলের দাবিতে যাত্রাবাড়ী জোনের উদ্যোগে মিছিল ও সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। বিক্ষোভ মিছিলটি শানির আখরা থেকে শুরু হয়ে নগরীর বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে সমাবেশের মাধ্যমে শেষ হয়। সমাবেশে বক্তব্য রাখেন ঢাকা মহানগরীর মজলিশে শুরা সদস্য নিজামুল হক। উপস্থিত ছিলেন শিবিরের ঢাকা মহানগরী দক্ষিণের সভাপতি সাদেকবিল্লাহ, জামায়াত নেতা শাহজাহান খান,  মনির হোসাইন, কবির হোসাইন, নেসার আহমদ, মুক্তার আলী, ছাত্রনেতা মুজিবুর রহমান মঞ্জু, তোফাজ্জাল হোসাইন, আহসান হাবীব, এনামুল হক ও ঈমাম হোসাইন প্রমুখ।

লালবাগ জোন
সকাল ৮.৩০ বিতর্কিত শিক্ষানীতি বাতিলের দাবিতে লালবাগ জোনের উদ্যোগে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। মিছিলটি বাবু বাজার থেকে শুরু হয়ে নগরীর বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে নয়াবাজারে গিয়ে সমাবেশের মাধ্যমে শেষ হয়। সমাবেশে বক্তব্য রাখেন কোতয়ালী থানা আমীর আবু আব্দুল্লাহ। উপস্থিত ছিলেন লালবাগ থানা আমীর আবু আনাস, চকবাজার থানা আমীর মোঃ আল আমীন, কামরাঙ্গীরচর থানা আমীর মাহমুদুল হাসান, কোতয়ালী সেক্রেটারি এম আর আজাদ, জামায়াত নেতা এ কে গিয়াস উদ্দীন, ডা. আবু নাসের, নূলে আলম, মাওলানা আবু সা’দ, সুলতান আহমদ, মাওলানা আহমদ উল্লাহ, মকসুদউল্লাহ, জহিরুল ইসলাম, হায়দার আলী, শিবিরের ঢাকা মহানগরী পূর্বের আইন বিষয়ক সম্পাদক হাফিজুর রহমান, কামরাঙ্গীরচর থানা সভাপতি মো. সিফাত, চকবাজার সেক্রেটারি আসলাম আলী, মো. কামাল ও ইদ্রিস প্রমূখ।

এছাড়াও রাজশাহী, বরিশাল, খুলনা, রংপুর, কুমিল্লা, গাজীপুর, নোয়াখালী, দিনাজপুর, ময়মনসিংহ, পাবনা, ফেনী, সিরাজগঞ্জ, ফরিদপুর, সাতক্ষীরা, ফরিদপু্‌র, নারায়াণগঞ্জ, বরগুনা, টাঙ্গাইল, মৌলভীবাজার, সুনামগঞ্জ, কক্সবাজারসহ  দেশের আরো বিভিন্ন স্থানে শান্তিপূর্ণ বিক্ষোভ কর্মসূচী অনুষ্ঠিত হয়।