Thursday, 28th May, 2020
Choose Language:

সর্বশেষ
সংবাদ
ইসরাইলী গোয়েন্দা সংস্থার সাথে জামায়াতের হাত মেলানোর প্রশ্নই আসে না
১৮ মে ২০১৬, বুধবার,
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গত ১৭ মে মঙ্গলবার রাতে লন্ডনের তাজ হোটেলে যুক্তরাজ্য শাখা আওয়ামী লীগ আয়োজিত এক সমাবেশে “ক্ষমতার লোভে মোসাদের সঙ্গে হাত মেলাচ্ছে বিএনপি জামায়াত” মর্মে যে ভিত্তিহীন অসত্য বক্তব্য প্রদান করেছেন তার নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামীর ভারপ্রাপ্ত সেক্রেটারী জেনারেল ডাঃ শফিকুর রহমান আজ  ১৮ মে  প্রদত্ত এক বিবৃতিতে বলেন, “বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামী এ দেশে ইসলামী কল্যাণ রাষ্ট্র কায়েমের জন্য স্বচ্ছ রাজনীতি করে। নিছক ক্ষমতার লোভে জামায়াতে ইসলামী রাজনীতি করে না। তাই ক্ষমতার লোভে ইসরাইলী গোয়েন্দা সংস্থার সাথে জামায়াতের হাত মেলানোর প্রশ্নই আসে না। 
 
বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামী নিয়মতান্ত্রিক গণতান্ত্রিক ধারার রাজনীতিতে বিশ্বাস করে। বাংলাদেশের জনগণের সমর্থন নিয়ে জামায়াত এ দেশে ইসলামী কল্যাণ রাষ্ট্র কায়েম করতে চায়। কোন বিদেশী শক্তির সাথে হাত মিলিয়ে জামায়াত ক্ষমতায় যেতে চায় না। 
 
প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্যের জবাবে আমি স্পষ্টভাষায় জানাতে চাই যে, জামায়াতে ইসলামী কখনো মানুষ পুড়িয়ে হত্যা করে না। জামায়াতের বিরুদ্ধে মানুষ পুড়িয়ে হত্যা করার অভিযোগ আজ পর্যন্ত কেউই প্রমাণ করতে পারেনি। পক্ষান্তরে দেশবাসী প্রত্যক্ষ করেছে যে, আওয়ামী লীগের সন্ত্রাসীরাই বাসে বোমা মেরে আগুনে পুড়িয়ে মানুষ হত্যা করার সময় হাতেনাতে ধরা পড়েছে। শিক্ষক, মসজিদের ইমাম, মন্দিরের পুরোহিত, বিদেশী নাগরিক, ব্লগার, শিক্ষাবিদ হত্যার সাথে বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামীর কোন সম্পর্ক নেই। কোন হত্যাকান্ডের সাথে জামায়াতের সংশ্লিষ্টতার কথা সরকার আজ পর্যন্ত প্রমাণ করতে পারেনি। আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে সরকারের চরম ব্যর্থতার কারণেই সম্প্রতি দেশে একের পর এক প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্যে উল্লেখিত হত্যাকান্ড গুলো সংঘটিত হয়েছে। এ সব হত্যাকান্ডের সাথে জড়িতদের সরকার এখন পর্যন্ত চিহ্নিত করে বিচার করতে পারেনি। সরকারের ব্যর্থতা আড়াল করার জন্যই প্রধানমন্ত্রী অসত্য বক্তব্য দিয়ে জামায়াতের ঘাড়ে দোষ চাপানোর অপচেষ্টা চালাচ্ছেন। প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্যের কোন সত্যতা নেই। এ ধরনের অসত্য বক্তব্য প্রধানমন্ত্রীর মুখে মানায় না। 
 
প্রধানমন্ত্রীর একই ভাঙ্গা ক্যাসেট শুনতে শুনতে জনগণ ক্লান্ত ও বিরক্ত। যেহেতু তিনি একই ভাঙ্গা ক্যাসেট বারবার বাজাচ্ছেন, তাই এগুলো আর বাংলাদেশের জনগণও বিশ্বাস করে না, এমনকি বিদেশের কেউই বিশ্বাস করে না।
 
জামায়াতের বিরুদ্ধে ভিত্তিহীন অসত্য ও হাস্যকর বক্তব্য প্রদান করা থেকে বিরত থাকার জন্য আমি প্রধানমন্ত্রীর প্রতি আহ্বান জানাচ্ছি।”