Thursday, 21st January, 2021
Choose Language:

সর্বশেষ
সংবাদ
দৈনিক যুগান্তর, সমকাল, বাংলাদেশ প্রতিদিন এবং কালেরকণ্ঠ পত্রিকার বিভ্রান্তিকর রিপোর্টের কোন ভিত্তি নেই
১২ মে ২০১৬, বৃহস্পতিবার,
দৈনিক যুগান্তর, দৈনিক সমকাল, বাংলাদেশ প্রতিদিন পত্রিকায় আজকে ১২ মে প্রকাশিত রিপোর্টে এবং কালেরকণ্ঠ পত্রিকায় গতকাল ১১ মে প্রকাশিত রিপোর্টে বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামীকে নিয়ে যে, ভিত্তিহীন ও বিভ্রান্তিকর রিপোর্ট প্রকাশ করা হয়েছে তার প্রতিবাদ জানিয়ে বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামীর কেন্দ্রীয় প্রচার বিভাগের সেক্রেটারী অধ্যাপক মোঃ তাসনীম আলম আজ ১২ মে প্রদত্ত এক বিবৃতিতে বলেন, “উপরে উল্লেখিত পত্রিকাগুলো বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামী নিয়ে যে সিন্ডিগেটেড যে রিপোর্ট প্রকাশ করেছে সেগুলোর কোন ভিত্তি নেই। জনগণের মধ্যে বিভ্রান্তি সৃষ্টির হীনউদ্দেশ্যেই এই সিন্ডিগেটেড রিপোর্টগুলো প্রচার করা হয়েছে। 
 
বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামী নিয়মতান্ত্রিক, গণতান্ত্রিক ধারার রাজনীতিতে বিশ্বাসী একটি ইসলামী সংগঠন। বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামী এর গঠনতন্ত্র অনুযায়ী পরিচালিত হয়ে আসছে। বর্তমান জালেম সরকার বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামীর আমীর শহীদ মাওলানা মতিউর রহমান নিজামীকে ও সেক্রেটারী জেনারেল শহীদ আলী আহসান মোহাম্মদ মুজাহিদকে ষড়যন্ত্র করে পরিকল্পিতভাবে হত্যা করেছে। এ কারণে জামায়াতে ইসলামী সংগঠনের ভারপ্রাপ্ত আমীর জনাব মকবুল আহমদ ও ভারপ্রাপ্ত সেক্রেটারী জেনারেল ডাঃ শফিকুর রহমানের নেতৃত্বে পরিচালিত হচ্ছে। সংগঠনের গঠনতন্ত্র মোতাবেকই যথাসময়ে আমীরে জামায়াতের নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে এবং আমীরে জামায়াত সেক্রেটারী জেনারেল নিয়োগ করবেন। সুতরাং এ নিয়ে বিভ্রান্তি সৃষ্টির কোন অবকাশ নেই। 
 
বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামী দেশের একটি আইনানুগ বৈধ রাজনৈতিক দল। সরকারের বাধা-বিপত্তি, জুলুম-নির্যাতন উপেক্ষা করে জামায়াত প্রকাশ্যে আইনানুগভাবে সাংগঠনিক ও রাজনৈতিক তৎপরতা চালিয়ে যাচ্ছে। আমরা আশা করি জামায়াতে ইসলামী আইনানুগভাবেই চলতে থাকবে ইনশাআল্লাহ। কাজেই জামায়াতের নাম বদল কিংবা নতুন নামে আত্মপ্রকাশ করার প্রশ্নই আসে না।  
 
অতএব, বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামীকে নিয়ে ভিত্তিহীন মিথ্যা ও বিভ্রান্তিকর রিপোর্ট প্রকাশ করা থেকে বিরত থাকার জন্য আমি দৈনিক যুগান্তর, দৈনিক সমকাল, বাংলাদেশ প্রতিদিন ও কালেরকণ্ঠ পত্রিকা কর্তৃপক্ষের প্রতি আহ্বান জানিয়ে আশা করছি যে, তারা অত্র প্রতিবাদটি যথাস্থানে ছেপে সৃষ্ট বিভ্রান্তি নিরসন করবেন।”