Wednesday, 11th December, 2019
Choose Language:

সর্বশেষ
সংবাদ
দৈনিক ইত্তেফাকে জামায়াতকে জড়িয়ে প্রকাশিত তথ্যের কোন ভিত্তি নেই
৭ মে ২০১৬, শনিবার,
দৈনিক ইত্তেফাক পত্রিকার প্রথম পৃষ্ঠায় “সরকার উৎখাতের বৈঠক নিয়ে তোলপাড়” শিরোনামে আজ ৭ মে প্রকাশিত রিপোর্টে “১০-১৪ মার্চ কয়েক দফা বৈঠক হয়। এ বৈঠকে বাংলাদেশের হিন্দু সম্প্রদায়ের এক সাংবাদিকও ছিলেন। তিনি জামায়াতের রাজনীতির সঙ্গে জড়িত” মর্মে যে ভিত্তিহীন মিথ্যা তথ্য পরিবেশন করা হয়েছে তার তীব্র প্রতিবাদ জানিয়ে বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামীর কেন্দ্রীয় প্রচার বিভাগের সেক্রেটারী অধ্যাপক মোঃ তাসনীম আলম আজ ০৭ মে প্রদত্ত এক বিবৃতিতে বলেন, “দৈনিক ইত্তেফাকে প্রকাশিত রিপোর্টে জামায়াতকে জড়িয়ে যে তথ্য পরিবেশন করা হয়েছে তা সর্বৈব মিথ্যা। 
 
দৈনিক ইত্তেফাক পত্রিকায় প্রকাশিত রিপোর্টে জামায়াতকে জড়িয়ে যে ভিত্তিহীন মিথ্যা তথ্য পরিবেশন করা হয়েছে সে সম্পর্কে আমাদের স্পষ্ট বক্তব্য হল আমি চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দিয়ে জানাতে চাই যে, জামায়াতের রাজনীতির সাথে জড়িত কোন হিন্দু সাংবাদিক নেই। কাজেই ১০-১৪ মার্চের কয়েক দফা বৈঠকের সাথেও জামায়াতের কোন সম্পর্ক নেই। দৈনিক ইত্তেফাকে প্রকাশিত রিপোর্টে উল্লেখিত হিন্দু সাংবাদিকের নাম প্রকাশ করার জন্য আমি আহ্বান জানাচ্ছি। 
 
দৈনিক ইত্তেফাকে ৫ মে ‘সরকার উৎখাতে এবার ‘মোসাদ’র অর্থায়ন’ শিরোনামে প্রকাশিত রিপোর্টে বলা হয়েছিল যে, গত ১৮ মার্চ লন্ডনে  বিএনপির একজন প্রভাবশালী নেতার রুমে অনুষ্ঠিত বৈঠকে জামায়াতে ইসলামীর একজন নেতা উপস্থিত ছিলেন। আর আজ ৭ মে প্রকাশিত রিপোর্টে বলা হয়েছে যে, জামায়াতের রাজনীতির সাথে জড়িত একজন হিন্দু সাংবাদিক ১০-১৪ মার্চ অনুষ্ঠিত কয়েক দফা বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন। তথ্যের এ গড়মিল থেকেই প্রমাণিত হয় যে, দৈনিক ইত্তেফাকে জামায়াতকে জড়িয়ে প্রকাশিত তথ্যের কোন ভিত্তি নেই। জামায়াতের ভাবমর্যাদা ক্ষুণ্ণ করার হীন উদ্দেশ্যেই এ কাল্পনিক তথ্যটি প্রকাশ করা হয়েছে। 
 
এ ধরনের কাল্পনিক তথ্য পরিবেশন করা থেকে বিরত থাকার জন্য আমি দৈনিক ইত্তেফাক পত্রিকা কর্তৃপক্ষের প্রতি আহ্বান জানিয়ে আশা প্রকাশ করছি যে, তারা অত্র প্রতিবাদটি যথাস্থানে ছেপে সৃষ্ট বিভ্রান্তি নিরসন করবেন।”