Thursday, 21st January, 2021
Choose Language:

সর্বশেষ
সংবাদ
শান্তিপূর্ণ বিক্ষোভ মিছিলে আইন শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর হামলা, বাধাদান ও গ্রেফতারের তীব্র নিন্দা
৮ মার্চ ২০১৬, মঙ্গলবার,
বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামীর কেন্দ্রীয় নির্বাহী পরিষদ সদস্য জনাব মীর কাসেম আলীকে হত্যার সরকারী ষড়যন্ত্রের প্রতিবাদে ও মুক্তির দাবীতে আজ ৮ মার্চ জামায়াতের নেতা-কর্মীরা সারা দেশে তাৎক্ষণিকভাবে শান্তিপূর্ণ বিক্ষোভ মিছিল বের করে। শান্তিপূর্ণ এ বিক্ষোভ মিছিলে রাজধানী ঢাকা, কক্সবাজার, নারায়ণগঞ্জসহ বিভিন্নস্থানে আইন শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর হামলা, বাধাদান ও গ্রেফতারের তীব্র নিন্দা এবং প্রতিবাদ জানিয়ে বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামীর ভারপ্রাপ্ত সেক্রেটারী জেনারেল ডাঃ শফিকুর রহমান আজ ৮ মার্চ প্রদত্ত এক বিবৃতিতে বলেন, “জামায়াতের শান্তিপূর্ণ মিছিলে পুলিশের হামলা, বাধাদান ও গ্রেফতারের মধ্যে দিয়ে সরকারের একদলীয় ফ্যাসিবাদী চরিত্রই অত্যন্ত নগ্নভাবে প্রকাশিত হয়েছে।

জামায়াতে ইসলামীর কেন্দ্রীয় নির্বাহী পরিষদ সদস্য জনাব মীর কাসেম আলীর বিরুদ্ধে মিথ্যা অভিযোগে মামলা দায়ের করে সরকারী দলের লোকদের দিয়ে মিথ্যা সাক্ষী দেওয়ায়ে সরকার তাকে হত্যার ষড়যন্ত্র করছে। তিনি ন্যায় বিচার থেকে বঞ্চিত হয়েছেন। তার বিরুদ্ধে যে রায় দেয়া হয়েছে তা ন্যায়ভ্রষ্ট। দেশের জনগণ সরকারের ষড়যন্ত্রের প্রতিবাদ জানাচ্ছেন।

জনাব মীর কাসেম আলীকে হত্যার ষড়যন্ত্রের প্রতিবাদে এবং মুক্তির দাবীতে আজ সারা দেশে  স্বতঃস্ফূর্তভাবে তাৎক্ষনিক শান্তিপূর্ণ বিক্ষোভ মিছিল অনুষ্ঠিত হয়েছে। শান্তিপূর্ণ মিছিল ও সমাবেশ করা জনগণের সাংবিধানিক মৌলিক অধিকার। এই অধিকারে সরকার অন্যায়ভাবে বাধা দিয়েছে। পুলিশের লাঠি চার্জ ও গুলীতে ঢাকা মহানগরীতে জামায়াতের ৭জন নেতা-কর্মী গুলিবিদ্ধ হওয়াসহ আহত হয়েছেন এবং ৮ জন গ্রেফতার হয়েছেন। আহতদের মধ্যে আছেন ঢাকা মহানগরী জামায়াতের কর্মপরিষদ সদস্য অধ্যাপক মোকাররম হোসাইন খান। নারায়ণগঞ্জ বন্দর থানা জামায়াতের আমীর জনাব শহিদুর রহমানকে ৮ মার্চ পুলিশ গ্রেফতার করেছে।

গ্রেফতার ও নির্যাতন বন্ধ করে জামায়াতের কেন্দ্রীয় নির্বাহী পরিষদ সদস্য জনাব মীর কাসেম আলীসহ জামায়াতের গ্রেফতারকৃত সকল নেতা-কর্মীদের অবিলম্বে মুক্তি দেয়ার জন্য আমি সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের প্রতি আহবান জানাচ্ছি।”