Friday, 10th July, 2020
Choose Language:

সর্বশেষ
সংবাদ
বাঁশখালীতে হত্যাকাণ্ড : নির্বিচারে মানুষ হত্যা করে সরকার গদি রক্ষা করতে পারবে না
৫ এপ্রিল ২০১৬, মঙ্গলবার,
চট্টগ্রামের বাঁশখালীতে বেসরকারী উদ্যোগে কয়লা ভিত্তিক বিদ্যুৎ কেন্দ্র নির্মাণের প্রতিবাদে গত ৪ এপ্রিল আয়োজিত স্থানীয় জনগণের বিক্ষোভ মিছিলে পুলিশের গুলি বর্ষণে ৬ ব্যক্তি নিহত ও দুই শতাধিক লোক আহত হওয়ার ঘটনার তীব্র নিন্দা জানিয়ে বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামীর ভারপ্রাপ্ত সেক্রেটারী জেনারেল ডাঃ শফিকুর রহমান আজ ৫ এপ্রিল  প্রদত্ত এক বিবৃতিতে বলেন, “বাঁশখালিতে প্রতিবাদী বিক্ষুব্ধ জনতার উপর নির্বিচারে গুলি চালিয়ে ৬ জন লোক নিহত ও দুই শতাধিক লোককে আহত করার ঘটনার মধ্য দিয়ে সরকারের ফ্যাসিবাদী চরিত্রই অত্যন্ত নগ্নভাবে ফুটে উঠেছে। এভাবে নির্বিচারে মানুষ হত্যা করে সরকার গদি রক্ষা করতে পারবে না।
 
বাঁশখালীতে বিক্ষোভকারী জনতার উপর গুলি বর্ষণ করে ৬ জনকে হত্যা ও দুই শতাধিক লোককে আহত করার মর্মান্তিক ঘটনায় দেশবাসী শোকাহত, ক্ষুব্ধ, মর্মাহত এবং উদ্বিগ্ন। সরকার জনগণের মতামতকে উপেক্ষা করার কারনেই এ মর্মান্তিক ঘটনা ঘটেছে। বর্তমান সরকার যদি জনগণের সরকার হত তাহলে জনগণের মতামত উপেক্ষা করে রক্তপাত ঘটানোর পথ বেছে নিত না। স্থানীয় জনগণের মতামতের প্রতি শ্রদ্ধা দেখিয়ে কয়লা ভিত্তিক বিদ্যুৎ কেন্দ্র নির্মাণের প্রকল্পের কাজ বন্ধ করে দেয়া উচিত। 
 
বাঁশখালীতে জনগণের বিক্ষোভ মিছিলে গুলি চালিয়ে ৬ জনকে হত্যা ও দুই শতাধিক লোককে আহত করার ঘটনার বিচার বিভাগীয় তদন্ত করে, ঘটনার সাথে জড়িত ব্যক্তিদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি প্রদান করার জন্য আমি সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের প্রতি আহ্বান জানাচ্ছি। 
 
বাঁশখালীতে জনগণের বিক্ষোভ মিছিলে পুলিশের গুলিতে যারা নিহত হয়েছেন আমি তাদের রূহের মাগফিরাত কামনা করছি এবং নিহতদের শোক সন্তপ্ত পরিবার-পরিজন, প্রতিবাদী এলাকাবাসী ও আহতদের প্রতি গভীর সমবেদনা জানাচ্ছি। সেই সাথে নিহতদের পরিবার-পরিজন, প্রতিবাদী এলাকাবাসী ও আহতদের উপযুক্ত ক্ষতিপূরণ দান এবং আহতদের সুচিকিৎসা নিশ্চিত করার জন্য আমি সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের প্রতি আহ্বান জানাচ্ছি।

ভবিষ্যতে কথায় কথায় পুলিশ যাতে এ ধরনের বেপরোয়া ও আপত্তিকর কর্মকান্ডে না জড়াতে পারে সে জন্য সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের প্রয়োজনীয় সকল পদক্ষেপ গ্রহণ করা উচিত।”