Thursday, 28th May, 2020
Choose Language:

সর্বশেষ
সংবাদ
মুজাহিদকে মৃত্যুদণ্ডে দণ্ডিত করার সরকারী ষড়যন্ত্রের প্রতিবাদে ১৯ নভেম্বর বৃহস্পতিবার দেশব্যাপী সর্বাত্মক শান্তিপূর্ণ হরতাল কর্মসূচি ঘোষণা
১৮ নভেম্বর ২০১৫, বুধবার,
সরকারের দায়ের করা মিথ্যা মামলায় বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামীর সেক্রেটারী জেনারেল ও সাবেক মন্ত্রী জনাব আলী আহসান মোহাম্মদ মুজাহিদকে মৃত্যুদণ্ডে দণ্ডিত করায় গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করে এবং সরকারী ষড়যন্ত্রের প্রতিবাদে আগামীকাল ১৯ নভেম্বর বৃহস্পতিবার দেশব্যাপী সর্বাত্মক শান্তিপূর্ণ হরতাল কর্মসূচি ঘোষণা করে বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামীর ভারপ্রাপ্ত আমীর জনাব মকবুল আহমাদ আজ ১৮ নভেম্বর নি¤েœাক্ত বিবৃতি প্রদান করেছেনঃ-
“জামায়াতকে নেতৃত্ব শূন্য করার জন্য সরকার জামায়াত নেতৃবৃন্দের বিরুদ্ধে পরিকল্পিতভাবে মিথ্যা ও ষড়যন্ত্রমূলক মামলা দায়ের করে বিচারের নামে প্রহসনের আয়োজন করেছে। সরকারী ষড়যন্ত্রের শিকার হয়েছেন জনাব আলী আহসান মোহাম্মদ মুজাহিদ। সরকার তাকে পরিকল্পিতভাবে হত্যা করার উদ্দেশ্যে তথাকথিত মানবতাবিরোধী অপরাধের মিথ্যা অভিযোগে ষড়যন্ত্রমুলক মামলা দায়ের করে। তার বিরুদ্ধে সুনির্দিষ্ট কোন অভিযোগ নেই। কোন প্রত্যক্ষদর্শী সাক্ষীও নেই। এতদসত্তে¡ও সরকারের মিথ্যা মামলায় জনাব মুজাহিদকে মৃত্যুদণ্ডে দণ্ডিত করা হয়েছে। এ রায়ের বিরুদ্ধে তিনি রিভিউ আবেদন করলে তা খারিজ করে দিয়ে মৃত্যুদণ্ড বহাল রাখা হয়। এ রায়ে জনাব মুজাহিদ ন্যায়বিচার থেকে বঞ্চিত হয়েছেন। জনাব মুজাহিদকে হত্যার সরকারী ষড়যন্ত্র বাংলাদেশের ইতিহাসে একটি কলঙ্কজনক অধ্যায় হিসেবে চিহ্নিত হয়ে থাকবে। 
যে মামলায় তাকে মৃত্যুদণ্ড দেয়া হল তা সম্পূর্ণ মিথ্যা। এই মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা ¯^ীকার করেছেন যে, ¯^াধীনতার পর থেকে আজ পর্যন্ত জনাব মুজাহিদের বিরুদ্ধে ফরিদপুর জেলাধীন কোন থানায় বা বাংলাদেশের অন্য কোন থানায় ১৯৭১ সালের মুক্তিযুদ্ধকালীন সময়ে সংঘটিত কোন অপরাধের জন্য কোন মামলা হয়েছে, এমন কোন তথ্য তিনি তার তদন্তে পাননি। মামলার আইও এটাও ¯^ীকার করেছেন যে, জনাব মুজাহিদ আল বদর, শান্তি কমিটি, রাজাকার বা আল শামস বা এই ধরনের কোন সহযোগী বাহিনীর সাথে সম্পৃক্ত ছিলেন, এমন কোন তথ্য তিনি তার তদন্তকালে পাননি। 
গতকাল রাষ্ট্রের এটর্নী জেনারেল গণমাধ্যমে প্রদত্ত বক্তব্যে ¯^ীকার করেছেন যে, জনাব মুজাহিদের বিরুদ্ধে সুনির্দিষ্ট কোন অভিযোগ নেই। বাংলাদেশের জনগণসহ গোটা বিশ্ববাসীর নিকট এ কথা অত্যন্ত স্পষ্ট যে, বিনা অপরাধে এবং আনীত অভিযোগসমূহ সম্পূর্ণ মিথ্যা প্রমাণিত হওয়া সত্তে¡ও শুধুমাত্র রাজনৈতিক কারণে জনাব মুজাহিদকে সরকারী পরিকল্পনায় হত্যার উদ্দেশ্য এ দণ্ডের ব্যবস্থা করা হয়েছে। গোটা জাতি এ রায়ে হতাশ হয়েছে। 
আমরা দৃঢ়ভাবে বিশ্বাস করি জনাব মুজাহিদকে সরকারী ষড়যন্ত্রে হত্যা করা সম্ভব হলেও তার রাজনৈতিক আদর্শ কখনো হত্যা করা সম্ভব নয়। 
এ অন্যায় ও ষড়যন্ত্রমূলক সরকারী হত্যাকাণ্ডের প্রতিবাদে আমি বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামীর পক্ষ থেকে আগামীকাল ১৯ নভেম্বর বৃহস্পতিবার সারা দেশে সর্বাত্মক শান্তিপূর্ণ হরতাল কর্মসূচি ঘোষণা করছি।”
বিঃদ্রঃ হাসপাতাল, এম্বুলেন্স, ফার্মেসী ইত্যাদি হরতালের আওতামুক্ত থাকবে।