১৭ নভেম্বর ২০১৯, রবিবার
Choose Language:

সর্বশেষ
চলতি বিষয়াবলি
কলারোয়ায় মাদরাসাশিককে পিটিয়ে আহত করেছেন যুবলীগ নেতা
১০ ফেব্রুয়ারি ২০১৭, শুক্রবার,
সাতক্ষীরার কলারোয়ায় মাদরাসা শিককে পিটিয়ে আহত করেছেন যুবলীগ নেতা। আহত মাদরাসাশিক হলেন কলারোয়া উপজেলার দেয়াড়া দাখিল মাদরাসার সহকারী সুপার মাওলানা আতাউর রহমান। গতকাল বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে এ ঘটনা ঘটে।
আহত মাদরাসাশিক আতাউর রহমান জানান, দেয়াড়া ইউনিয়ন যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক বাপ্পী খান ও তার সহযোগী ওয়াজেদ আলি তাকে কলারোয়ার খোরদো বাজারে আওয়ামী লীগ অফিসের কাছে একটি কাবের মধ্যে নিয়ে যান। এ সময় তারা তাকে কাঠের চলা দিয়ে মারধর করে আহত করেন। এর আগে তারা তার মোটরসাইকেল থামিয়ে চাবি কেড়ে নেন। খোরদো ফাঁড়ির পুলিশ সদস্যরা তাকে উদ্ধার করে কলারোয়া হাসপাতালে ভর্তি করে দেন বলে তিনি জানান।
তিনি আরো জানান, সম্প্রতি তার মাদরাসায় পরিচালনা পরিষদের নির্বাচন হয়েছে। এই নির্বাচনে সভাপতি পদে জুয়েল রানা ও ওয়াজেদ আলি প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন। নির্বাচনে হেরে যান ওয়াজেদ আলি। নির্বাচনের সময় তিনি ভারপ্রাপ্ত সুপারের দায়িত্বে ছিলেন। নির্বাচনে হেরে যাওয়ায় ওয়াজেদ আলি ও তার সহযোগী ইউনিয়ন যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক বাপ্পী খান তার ওপর ক্ষিপ্ত হয়ে ওঠেন। আতাউর বলেন, মারধর করে আমাকে ফেলে চলে যাওয়ার সময় ঘটনাস্থলে পুলিশ আসে। তারা আমাকে উদ্ধার করে কলারোয়া হাসপাতালে নিয়ে যান। তিনি জানান, ওয়াজেদ আলি আমাকে গলাধাক্কা দিয়েছেন। কিল-ঘুষিও মেরেছেন। 
এ বিষয়ে জানতে চাইলে যুবলীগ নেতা বাপ্পী খান বলেন, আমাদের মধ্যে একটু ঝামেলা হয়েছিল সত্য। তবে তা মিটে গেছে। কুশোডাঙ্গা ইউপি সদস্য মো: হাফিজুর রহমান দুইপক্ষকে বসিয়ে বিষয়টি নিষ্পত্তি করে দিয়েছেন। এ সময় পুলিশের দুই সদস্যও সেখানে উপস্থিত ছিলেন। আমরা একসাথে খাওয়া-দাওয়া করে বাড়ি ফিরে এসেছি।
http://www.dailynayadiganta.com/detail/news/194490