১৯ নভেম্বর ২০১৯, মঙ্গলবার
Choose Language:

সর্বশেষ
চলতি বিষয়াবলি
পেনশনের শতভাগ সমর্পণের সুবিধা বাতিলে ক্ষোভ
১৮ জানুয়ারি ২০১৭, বুধবার,
পেনশনের শতভাগ সমর্পণের সুবিধা বাতিলের সিদ্ধান্তে ক্ষোভ বাড়ছে সরকারি চাকরিজীবীদের মধ্যে। এ বিষয়ে তীব্র ক্ষোভ ও অসন্তোষ জানিয়েছেন বাংলাদেশ সচিবালয় কর্মকর্তা-কর্মচারী ঐক্য পরিষদের নেতারা। তারা বলেছেন, অবিলম্বে সরকারের এই সিদ্ধান্ত বাতিল করতে হবে। অর্থসচিব মাহবুব আহমেদের কাছে পাঠানো এক স্মারকলিপিতে তারা এ দাবি জানিয়েছেন বলে সংশ্লিষ্ট এক সূত্র জানিয়েছে। 
চলতি মাসের ৯ তারিখে অর্থমন্ত্রণালয় থেকে একটি প্রজ্ঞাপন জারি করা হয়। এতে বলা হয়, ‘সরকারি কর্মচারীদের (বেসামরিক/সামরিক) গ্রস পেনশনের শতকরা ১০০ ভাগ সমপর্ণের সুবিধা বাতিল করা হলো। এর পরিবর্তে শতকরা ৫০ ভাগ বাধ্যতামূলক সমর্পণ এবং অবশিষ্ট শতকরা ৫০ ভাগের জন্য নির্ধারিত হারে মাসিক পেনশনের বিধান প্রবর্তন করা হলো। এই বিধান ১ জুলাই ২০১৭ সাল থেকে কার্যকর হবে। ’
এর সিদ্ধান্তের প্রেক্ষপটে ঐক্য পরিষদ নেতারা ১৫ জানুয়ারি এক সভার আয়োজন করে। এই সভায় পেনশনের শতভাগ সমর্পণের বিষয়ে সরকারের এই নতুন সিদ্ধান্ত বাতিলের দাবি জানানো হয়। 
এর আগে, পুরনো বিধানে অবসরে যাওয়া যেকোনো সরকারি চাকরিজীবী তার পেনশনের শতভাগ সরকারের কাছে সমর্পণ বা বিক্রি করে দিতে পারতেন। কিন্তু নতুন নিয়মে পেনশনের ৫০ ভাগের বেশি সমর্পণ করা যাবে না। পেনশনের শতভাগ সমর্পণের বিধান বাতিলের পক্ষে ও বিপক্ষে মতামত রয়েছে। এর পক্ষে মত হচ্ছেÑ পেনশনের শতভাগ সমর্পণ করতে দিলে সরকারি চাকরিজীবীরা অনেক সময় ভবিষ্যতে ঝুঁকির মুখে পড়ে যান। কারণ পেনশনের শতভাগ সমর্পণের ফলে একজন অবসরভোগী সরকারি চাকরিজীবীর হাতে এককালীন অনেকগুলো টাকা চলে আসে। এই টাকা দিয়ে তারা বা তাদের পোষ্যরা ঝুঁকিপূর্ণ বিনিয়োগ করে থাকেন। এতে করে তারা অনেক সময় সব অর্থ হারিয়ে নিঃস্ব হয়ে যান। বিশেষ করে শেয়ারবাজারে বিনিয়োগ করে বিগত দিনে অনেক পেনশনভোগী নিঃস্ব হয়ে গেছেন। তাই তাদের মত হচ্ছেÑ শতভাগ পেনশন সমর্পণ করার বিধান বাতিল করা খুব ভালো সিদ্ধান্ত। 
অন্য দিকে এর বিপক্ষে অভিমত হচ্ছেÑ শতভাগ পেনশন সমর্পণ করার ফলে একজন অবসরভোগীর হাতে অনেকগুলো টাকা একসাথে চলে আসে। এই অর্থ দিয়ে তারা আবাসন খাতে বিনিয়োগসহ অন্যান্য জরুরি প্রয়োজনে ব্যয় করতে পারেন। বিশেষ করে যারা অপেক্ষাকৃত কম বেতন পান তাদের জন্য এই বিধান বাতিল করা কোনোভাবে কাম্য নয়। 
এ দিকে বাংলাদেশ সচিবালয় কর্মকর্তা-কর্মচারী ঐক্য পরিষদ সচিবালয়ে কর্মরতদের জন্য ২০ ভাগ ভাতা দেয়ার জন্যও দাবি জানিয়েছে।
http://www.dailynayadiganta.com/detail/news/188289