২০ অক্টোবর ২০১৯, রবিবার
Choose Language:

সর্বশেষ
ট্রাইবুনাল
মীর কাসেম আলীর মৃত্যুদণ্ডাদেশ রহিত ও ছেলের খোঁজ দেয়ার আহ্বান জাতিসঙ্ঘের
২৩ আগস্ট ২০১৬, মঙ্গলবার,
জামায়াতে ইসলামীর নেতা মীর কাসেম আলীর মৃত্যুদণ্ডাদেশ রহিত করার আহ্বান জানিয়েছেন মানবাধিকারবিষয়ক জাতিসঙ্ঘের বিশেষজ্ঞরা। তারা আন্তর্জাতিক মান বজায় রেখে মীর কাশেম আলীর পুনর্বিচারের আহ্বান জানিয়েছেন। 
 
মীর কাসেম আলীর ছেলে ও তার ডিফেন্স টিমের আইনজীবী মীর আহমেদ বিন কাসেমকে গত ৯ আগস্ট তার বাসা থেকে বাংলাদেশের নিরাপত্তা বাহিনী তুলে নিয়ে যাওয়ার ব্যাপারেও উদ্বেগ প্রকাশ করেছে মানবাধিকারবিষয়ক জাতিসঙ্ঘ বিশেষজ্ঞ দল। তাদের মতে, মীর কাসেম আলীর রিভিউ শুনানির দুই সপ্তাহ আগে কী সন্দেহ বা অভিযোগে, কাদের দ্বারা এবং কোথায় তার ছেলেকে আটকে রাখা হয়েছে, এ ব্যাপারে কোনো তথ্য পাওয়া যাচ্ছে না। মীর আহমেদ বিন কাসেমের অবস্থান সম্পর্কে অবিলম্বে জানানোর জন্য জাতিসঙ্ঘের বিশেষজ্ঞরা বাংলাদেশের কর্তৃপক্ষের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে।
 
বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্টে মীর কাসেম আলীর রিভিউ শুনানির এক দিন আগে বিচারবহির্ভূত হত্যাকাণ্ড, বিচার বিভাগের স্বাধীনতা, নির্যাতন, বিনা বিচারে আটক ও জোরপূর্বক অপরহণবিষয়ক জাতিসঙ্ঘের বিশেষজ্ঞরা জেনেভা থেকে আজ দেয়া এক বিবৃতির মাধ্যমে এসব আহ্বান জানিয়েছেন।
 
বিবৃতিতে বলা হয়েছে, ১৯৭১ সালে স্বাধীনতা যুদ্ধচলাকালে মানবতাবিরোধী অপরাধের জন্য বাংলাদেশের আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল (আইসিটি) ২০১৪ সালে মীর কাসেম আলীকে মৃত্যুদণ্ড দেন। আইসিটির দেয়া রায় গত ৮ মার্চ সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগ বহাল রাখেন। 
 
এতে বলা হয়, মীর কাসেম আলীর বিচার প্রক্রিয়ায় অনিয়ম রয়েছে বলে অভিযোগ রয়েছে। এটি মৃত্যুদণ্ড প্রয়োগে সুষ্ঠু বিচার ও যথাযথ প্রক্রিয়া-সংক্রান্ত আন্তর্জাতিক মান বজায় রাখতে ব্যর্থ হয়েছে। 
http://www.dailynayadiganta.com/detail/news/147455