২০ নভেম্বর ২০১৯, বুধবার
Choose Language:

সর্বশেষ
বিজ্ঞপ্তি
মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস পালনের আহ্বান
২৩ মার্চ ২০১৬, বুধবার,
আগামী ২৬ মার্চ যথাযোগ্য মর্যাদায় মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস পালনের আহ্বান জানিয়ে বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামীর ভারপ্রাপ্ত আমীর জনাব মকবুল আহমাদ আজ (২৩/০৩/২০১৬) নিম্নোক্ত বিবৃতি প্রদান করেছেনঃ-
 
“আগামী ২৬ মার্চ আমাদের মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস। আমাদের জাতীয় জীবনে এ দিনের তাৎপর্য ও গুরুত্ব অপরিসীম। জাতির শ্রেষ্ঠ সন্তান বীর মুক্তিযোদ্ধা ও জনগণের সীমাহীন ত্যাগ এবং কুরবানীর বিনিময়ে ১৯৭১ সালে বিশ্বের মানচিত্রে স্বাধীন-সার্বভৌম বাংলাদেশের অভ্যূদয় ঘটে। ক্ষুধা, দারিদ্র ও বেকারত্ব মুক্ত একটি দেশ প্রতিষ্ঠার জন্য এ দেশের সাহসী সন্তানেরা যে প্রতিরোধ গড়ে তুলেছিল, তারই ধারাবাহিকতায় বাংলাদেশের জন্ম  হয়। এ দেশের মানুষের স্বপ্ন ছিল স্বাধীনতার মাধ্যমে গণতান্ত্রিক অধিকার, ভাতের অধিকার, ভোটের অধিকার ও বেঁচে থাকার অধিকার প্রতিষ্ঠিত হবে। জনগণের জানমাল, ইজ্জত-আব্রুর নিরাপত্তার গ্যারান্টি নিশ্চিত হবে। কিন্তু দুর্ভাগ্যের বিষয় স্বাধীনতার ৪৫ বছর অতিবাহিত হওয়ার পরও জনগণের সে স্বপ্ন পূরণ হয়নি। সরকার জনগণের ভোটাধিকার কেড়ে নিয়েছে। দেশে চলছে সীমাহীন দুর্নীতি, সন্ত্রাস, লুটপাট, নৈরাজ্য। 
 
গণতন্ত্র ও আইনের শাসনের কবর রচনা করা হয়েছে। রাষ্ট্রীয় সন্ত্রাস, হত্যা, খুন, গুম, অপহরণ ও মানবাধিকার লঙ্ঘনের ঘটনা বাংলাদেশকে এক রক্তাক্ত জনপদে পরিণত করেছে। গণগ্রেফতারের কারণে মানুষের মধ্যে বিরাজ করছে উদ্বেগ, উৎকণ্ঠা ও আতঙ্ক। 
দুর্নীতি, দুঃশাসন, দলীয়করণ, বাক-স্বাধীনতা ও  বিচার বিভাগের স্বাধীনতা হরণ করে সরকার দেশকে এক অনিশ্চয়তার গহ্বরে নিপতিত করেছে। ইসলাম ও ঈমান-আক্বিদার ওপর চলছে সর্বগ্রাসী হামলা। দেশের আলেম-ওলামা-পীর মাশায়েখগণও সরকারের জুলুম নিপীড়ণ থেকে রেহাই পাচ্ছেন না। এ অবস্থা থেকে মুক্তির জন্য জাতি আজ সংগ্রাম করে যাচ্ছে। জনতার এ আন্দোলনের মাধ্যমেই মহান স্বাধীনতার স্বপ্ন বাস্তবায়িত হবে ইনশাআল্লাহ। 
 
মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস উপলক্ষ্যে আমরা নিম্নোক্ত কর্মসূচি ঘোষণা করছিঃ-
১। ২৫ মার্চ শুক্রবার দেশের স্বাধীনতা-সার্বভৌমত্ব হেফাযতের জন্য দোয়া
২। ২৬ মার্চ আলোচনা সভা ও র‌্যালি। 
মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস উপলক্ষ্যে ঘোষিত কর্মসূচি যথাযোগ্য মর্যাদায় পালনের জন্য আমরা জামায়াতের সকল শাখা ও দেশবাসীর প্রতি আহবান জানাচ্ছি।”