২১ সেপ্টেম্বর ২০১৯, শনিবার
Choose Language:

সর্বশেষ
বিজ্ঞপ্তি
মাওলানা আব্দুর রহীমকে গুরুতর অসুস্থ অবস্থায় পূনরায় গ্রেপ্তারের প্রতিবাদ
১৭ মার্চ ২০১৬, বৃহস্পতিবার,
বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামী পাবনা জেলা আমীর মাওলানা আব্দুর রহীম গুরুতর অসুস্থ অবস্থায় পূনরায় জেল গেট থেকে পুলিশ কর্তৃক আটক করায় জেলা জামায়াতের প্রতিবাদ ঃ  
 
বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামী পাবনা জেলা আমীর দীর্ঘ এক বছর দুই মাস এক টানা কারা বন্দী থাকার পর গত কাল ১৬ মার্চ ২০১৬ তারিখে গুরুতর অসুস্থ্য থাকা অবস্থায় কারা কর্তৃপক্ষের তত্বাবধানে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মহামান্য হাইকোর্ট থেকে উন্নত চিকিৎসার জন্য জামিন প্রাপ্ত হয়ে ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগার থেকে মুক্তির সময় পাবনা জেলা পুলিশ কর্তৃক তাকে জেল গেট থেকে সম্পুর্ণ বে-আইনিভাবে পুণরায় গ্রেফতার করায় তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন পাবনা জেলা জামায়াতের ভারপ্রাপ্ত আমীর ও জেলা সেক্রেটারী। প্রতিবাদে নেতৃবৃন্দ বলেন- পাবনা জেলা জামায়াতের আমীর মাওলানা আব্দুর রহীম দীর্ঘ প্রায় সোয়া এক বছর এক টানা বিভিন্ন মিথ্যা মামলায় আটক ছিলেন। তিনি হাইড্রোসিল, মুত্রনালী, ডায়াবেটিস, উচ্চ রক্ত চাপসহ নানাবিধ জটিল রোগে বিনা চিকিৎসা ও নাম মাত্র চিকিৎসায় কারাভোগ করছিলেন। তার শারীরিক অবস্থার চরম অবনতি হলে গত ১৮ ফেব্রুয়ারী ২০১৬ তারিখে চিকিৎসা বোর্ডের পরামর্শে দ্বিতীয় দফায় অপারেশন ও উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে কারা কর্তৃপক্ষের মাধ্যমে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়া হয়। সেখানকার চিকিৎসকগণ তাকে ভর্তি করে অপারেশনের পরামর্শ দেন। কিন্তু তাকে ভর্তি না করে ও অপারেশন না করে সুচিকিৎসা দিতে গড়িমসি করা হয়। এ অবস্থায় তার সর্বশেষ মামলায় (এজাহারে নাম না থাকলেও  পুলিশ তাকে আসামী করে) মহামান্য হাইকোর্ট থেকে গত ৭ মার্চ জামিন প্রাপ্ত হন এবং ১৩ মার্চ পাবনা জেলা চীফ জুডিশিয়াল ম্যজিস্ট্রেট আদালতে বন্ডের মাধ্যমে জামিন নামা দাখিল করলে তার নামে আর কোন মামলা না থাকায় বিজ্ঞ আদালত তাকে মুক্তির আদেশ দিলে পাবনা জেলা করাকর্তৃপক্ষ সে আদেশ ডাক যোগে ঢাকা কেন্দ্রীয় করাগারে পাঠান। গত ১৬ মার্চ ২০১৬, বুধবার মুক্তি আদেশ ঢাকা কেন্দ্রীয় করাগারে পৌছালে আনুমানিক  বেলা ৩ টার দিকে জামিনে মুক্তির সময় পাবনা সদর থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) জনাব আব্দুল কুদ্দুস সাহেবের নেতৃত্বে¡ পূর্ব থেকেই অবস্থান নেয়া এক দল পুলিশ সদস্য তাকে পুণরায় গ্রেফতার করে বুধবার রাতেই তাকে পাবনা নিয়ে আসা হয়। আমাদের জানামতে বর্তমানে (বৃহঃপতিবার)  তিনি বেলা ১২ টার সময় পর্যন্ত পাবনা ডিবি হেফাজতে আছেন।
 
নেতৃবৃন্দ আরও বলেন- তাকে গ্রেফতারের পর থেকে এজাহারে নাম নেই এরকম প্রায় ৭/৮ টা মামলায় যখনই জামিন হয় তখনই তাকে পুণরায় গ্রেফতার দেখিয়ে তার মুক্তি  আটকানো হয়েছে। যা আমাদের দেশের প্রচলিত আইনের সম্পুর্ণ পরিপন্থী। 
 
তদুপরি একজন গুরুতর অসুস্থ্য ব্যক্তির চিকিৎসা সম্পন্ন না করে তার নামে জামিন বাদে কোন মামলা না থাকলেও জামিনে মুক্তির সময় জেল গেট থেকে পুণরায় আটক করা চরম মানবতা বিরোধী কাজ। এমতাবস্থায় পাবনা জেলা জামায়াতের আমীর মাওলানা আব্দুর রহীমের জীবন সংকটাপন্ন। তার জীবনে যে কোন ঝুঁকির সৃষ্টি হলে সরকার ও জেলা পুলিশ প্রশাসনকেই দায়ী থাকতে হবে। 
আমরা তার নিঃশর্ত মুক্তি দাবী করছি।