৯ এপ্রিল ২০২০, বৃহস্পতিবার
Choose Language:

সর্বশেষ
বিজ্ঞপ্তি
এটর্নী জেনারেলের মিথ্যাচার জামায়াত নেতাদের চরিত্র হননের ধারাবাহিক অপচেষ্টারই অংশ
২ ডিসেম্বর ২০১৫, বুধবার,
মাওলানা মতিউর রহমান নিজামীর পক্ষে নিয়োজিত ডিফেন্স টীমের পক্ষে এডভোকেট সাইফুর রহমান বলেন, ‘জামায়াতের আমীর মাওলানা মতিউর রহমান নিজামীর দোষ স্বীকার নিয়ে জনাব এটর্নী জেনারেলের মিথ্যাচার জামায়াত নেতাদের চরিত্র হননের ধারাবাহিক অপচেষ্টারই অংশ।’

আজ বুধবার ২রা ডিসেম্বর মহামান্য সুপ্রীম কোর্টে মাওলানা নিজামীর পক্ষে ৩ দিনব্যাপি যুক্তি-তর্ক উপস্থাপন সমাপ্ত হওয়ার পর জনাব এটর্নী জেনারেল মিডিয়ার সামনে মিথ্যাচার করেছেন যে, ‘নিজামীর আইনজীবী দোষ স্বীকার করে ফাঁসী থেকে রেহাই চেয়েছেন’। প্রকৃতপক্ষে মাওলানা নিজামীর আইজীবীগণ গত ৩ দিনযাবত ২৭১ পৃষ্ঠার দীর্ঘ লিখিত যুক্তিতর্ক মহামান্য আদালতে উপস্থাপন করে মাওলানা নিজামীকে নির্দোষ দাবী করে তাকে খালাস দেয়ার দাবী করেন। উক্ত লিখিত যুক্তি-তর্কের একটি কপি নিয়ম অনুযায়ী জনাব এটর্নী জেনারেলকেও দেয়া হয়েছে।  

মাওলানা মতিউর রহমান নিজামীর আইনজীবীগণ তাদের এই লিখিত প্রতিবাদে দ্ব্যার্থহীনভাবে দাবী করছেন যে, কোথাও কোনভাবেই নিজামী সাহেবের দোষ স্বীকার করে ক্ষমা চাওয়ার বিষয়টি কোর্টে উপস্থাপন করা হয়নি। বরং তাকে নির্দোষ দাবী করে খালাস চাওয়া হয়েছে। মাওলানা নিজামীর পক্ষের সিনিয়র আইজীবী খন্দকার মাহবুব হোসেন পরিষ্কারভাবে মহামান্য আপিলেট ডিভিশনে উপস্থাপন করেছেন যে, মাওলানা নিজামী তার রাজনৈতিক বিশ্বাস থেকে ১৯৭১ সালে অখন্ড পাকিস্তানের পক্ষে বক্তব্য রাখতে পারেন, তবে সরকার পক্ষ তার বিরুদ্ধে আনীত সুনির্দিষ্ট অভিযোগসমুহের সাথে তার সংশ্লিষ্টতা প্রমাণে সম্পূর্ণ ব্যর্থ হয়েছে। 

১৯৮৬ সালে তিনি প্রথমবারের মত জাতীয় সংসদ নির্বাচনে দাঁড়ানোর আগ পর্যন্ত তার বিরুদ্ধে কোন মামলা হওয়া তো দূরের কথা, পত্র-পত্রিকায় পর্যন্ত তাকে আলবদর, রাজাকার হিসাবে উপস্থাপন করা হয়নি। তিনি মহামান্য আদালতে আরও নিবেদন করেন যে, মাওলানা নিজামী যে একজন ইসলামী স্কলার এবং সজ্জন ব্যক্তি সেটি ট্রাইব্যুনাল তার রায়ের ৪১৪ নং প্যারায় স্বীকার করেছেন এবং তিনি একজন বয়স্ক ব্যক্তি একই সাথে দীর্ঘদিন ধরে অসুস্থ। মহামান্য সুপ্রীম কোর্ট রায় প্রদানকালে এ বিষয়গুলো আমলে নিবেন বলে তিনি নিবেদন রাখেন। এই বক্তব্যকে ক্ষমা চেয়ে ফাঁসী থেকে রেহাই চেয়েছেন মর্মে প্রচার করে জনাব এটর্নী জেনারেল আবারও প্রমাণ করেছেন যে, সরকার বিচারের বিষয়টি নিয়ে নোংরা রাজনীতি করতে চায় এবং এটি জামায়াত নেতাদের চরিত্রহননের ধারাবাহিক অপচেষ্টারই অংশ। এই জঘন্য মিথ্যাচারটি আইন পেশার শিষ্ঠাচারের চরম খেলাপ। মাওলানা নিজামীর আইনজীবীগণ এই মিথ্যাচারের তীব্র প্রতিবাদ জানাচ্ছে।
 
মাওলানা নিজামীর পক্ষে নিয়োজিত ডিফেন্স টীমের পক্ষে
এডভোকেট সাইফুর রহমান