২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২০, বুধবার
Choose Language:

সর্বশেষ
ট্রাইবুনাল
আমরা আশাবাদী মুজাহিদ খালাস পাবেন -খন্দকার মাহবুব হোসেন
১৮ নভেম্বর ২০১৫, বুধবার,
জামায়াতে ইসলামীর সেক্রেটারি জেনারেল আলী আহসান মোহাম্মদ মুজাহিদের প্রধান আইনজীবী ও সুপ্রিম কোর্ট বার এসোসিয়েশনের সভাপতি খন্দকার মাহবুব হোসেন বলেছেন, যে অভিযোগে মুজাহিদকে মৃত্যুদন্ড দেয়া হয়েছে তা আইনানুগ হয়নি। কারণ সুনির্দিষ্ট অভিযোগে তাকে সাজা দেয়া হয়নি। তিনি সুনির্দিষ্ট অভিযোগে অভিযুক্ত হননি। আপিলের রায় পুনর্বিবেচনাযোগ্য। তাই আমরা এই সাজা পুনর্বিবেচনার (রিভিউ) জন্য আবেদন করেছি। আপিল বিভাগ রিভিউর শুনানি শেষে কাল (আজ বুধবার) রায়ের দিন ধার্য করেছেন। আমরা আশাবাদী মুজাহিদ খালাস পাবেন। 
মুজাহিদের রিভিউর শুনানি শেষে খন্দকার মাহবুব হোসেন বার ভবনে নিজ কার্যালয়ে সাংবাদিকদের ব্রিফিংকালে এ সব কথা বলেন।
খন্দকার মাহবুব হোসেন বলেন, রিভিউ’র শুনানিতে আমরা নতুন তিনটি ফ্রেশ যুক্তি উপস্থাপন করে মুজাহিদের খালাস চেয়েছি। এর মধ্যে ‘দি ভ্যাঙ্কুইশড জেনারেলস’ নামের একটি বই রয়েছে। অধ্যাপক ড.মুনতাসির মামুনের লেখা এই বইতে মুক্তিযুদ্ধকালীন পাকিস্তান সেনাবাহিনীর শীর্ষ দু’কর্মকর্তা রাও ফরমান আলী এবং জেনারেল এ, এ, কে, নিয়াজি স্বীকার করেছেন যে, আলবদর বাহিনী সরাসরি আর্মির কমান্ডে এবং কন্ট্রোলে পরিচালিত হতো। সেখানে সাধারণ নাগরিকের অন্তর্ভুক্তি ছিল না।
অপর যুক্তি ছিল এই অভিযোগে অন্যান্য মামলার আসামীদের ক্ষেত্রে সুনির্দিষ্ট অভিযোগ ছিল। কিন্তু মুজাহিদের বিরুদ্ধে সুনির্দিষ্ট অভিযোগ নেই। বুদ্ধিজীবী হত্যার বিষয়ে স্বাধীনতার পরে ৪২টি মামলা হয়েছে। যেখানে মুজাহিদের বিরুদ্ধে অভিযোগ আনা হয়নি। মামলার তদন্ত কর্মকর্তাও বলেছেন আল বদর কমান্ডার হিসেবে মুজাহিদের নাম তিনি কোথায়ও খুঁজে পাননি।
আরেকটি যুক্তি ছিল সুপিরিয়র রেসপন্সিবিলিটির। আমরা আপিল বিভাগের আগের রায় থেকে দেখিয়েছি সুপিরিয়র রেসপন্সিবিলিটির দায় ও দায়িত্ব কার ওপর বর্তায়। আল বদর আল শামস পাকিস্তানী সেনাবহিনীর কন্ট্রোলে ও কমান্ডে পরিচালিত হতো। শুধুমাত্র মুক্তিযুদ্ধকালে ইসলামী ছাত্রসংঘের সেক্রেটারি হওয়ার কারণে তার ওপর দায় দায়িত্ব চাপিয়ে বা সাজা দেয়া আইনানুগ হবে না।  
তিনি বলেন, আপিল বিভাগ আমাদের বক্তব্য ধৈর্য সহকারে শুনেছেন। আগামীকাল (আজ বুধবার) রিভিউ’র রায়ের দিন ধার্য করা হয়েছে। আমরা প্রত্যাশা করছি এতে মুজাহিদ খালাস পাবেন।
http://www.dailysangram.com/news_details.php?news_id=212780