২৩ অক্টোবর ২০২০, শুক্রবার
Choose Language:

সর্বশেষ
ট্রাইবুনাল
মাওলানা নিজামীর আপিলের শুনানি ৩ নভেম্বর পর্যন্ত মুলতবি
৯ সেপ্টেম্বর ২০১৫, বুধবার,
জামায়াতে ইসলামীর আমীর ও সাবেক মন্ত্রী মাওলানা মতিউর রহমান নিজামীর আপিলের শুনানি আগামী ৩ নভেম্বর পর্যন্ত শুনানি মুলতবি করা হয়েছে। এ সময়ের মধ্যে সরকার ও ডিফেন্সপক্ষকে আপিলের সারসংক্ষেপ লিখিতভাবে জমা দিতে বলেছেন সর্বোচ্চ আদালত।
আজ বুধবার প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহার নেতৃত্বে চার সদস্যের বেঞ্চ শুনানি মুলতবির এ আদেশ দেন। বেঞ্চের অপর সদস্যরা হলেন বিচারপতি নাজমুন আরা সুলতানা, বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেন ও বিচারপতি হাসান ফয়েজ সিদ্দিকী।
সকাল ১০টা ৩৫ মিনিটে আপিলের শুনানি শুরু হয়। প্রথমে সরকারপক্ষে আদালতে আপিলের নথিপত্র উপস্থাপন শুরু করেন সরকারের এটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম। মাওলানা নিজামীর পক্ষে তার আইনজীবী জয়নুল আবেদীন তুহিন পেপারবুক থেকে ১ নম্বর অভিযোগের তিনজন সাক্ষীর জবানবন্দি আদালতে পড়ে শোনান। পরে আদালত শুনানি ৩ নবেম্বর পর্যন্ত মুলতবি করেন। মাওলানা মতিউর রহমান নিজামীর পকে পক্ষে এডভোকেট তাজুল ইসলাম ও এডভোকেট শিশির মনির উপস্থিত ছিলেন।
শুনানির জন্য মাওলানা নিজামীর মামলাটি কার্যতালিকায় ৫ নম্বরে ছিল। এর সঙ্গে সময় চেয়ে ডিফেন্সপক্ষে একটি আবদন ছিল। এর আগে সকাল ৯টায় আদালতের কার্যক্রম শুরু হলে মাওলানা নিজামীর আইনজীবীরা মামলাটি শুনানি ও সময় আবেদনের বিষয়ে উপস্থাপন করলে আদালত বলেন, কার্যতালিকা অনুযায়ী শুনানি শুরু হবে। পরে ক্রমিক অনুযায়ী সকাল ১০টা ৩৫ মিনিটে শুনানি শুরু হয়।
এ বিষয়ে মাওলানা নিজামীর আইনজীবী এডভোকেট শিশির মনির বলেন, সকালে সময় আবেদন করেছি। আদালত বলেছেন, কার্যতালিকা অনুযায়ী শুনানি শুরু হবে। পরে কার্যতালিকা অনুযায়ী সকাল সাড়ে ১০টার দিকে শুনানি শুরু হয়। তিনি আরো জানান, প্রথম দিনের শুনানি শেষে আগামী ৩ নবেম্বর পর্যন্ত শুনানি মুলতবি করা হয়েছে। একই সঙ্গে এ সময়ের মধ্যে সরকারপক্ষ ও ডিফেন্সপক্ষকে সারসংক্ষেপ লিখিতভাবে জমা দিতে বলা হয়েছে।
এ মামলায় মাওলানা নিজামীর প্রধান আইনজীবী হিসেবে শুনানি করবেন সুপ্রিম কোর্ট বার এসোসিয়েশনের সভাপতি ও জ্যেষ্ঠ আইনজীবী খন্দকার মাহবুব হোসেন।
প্রসঙ্গত আগামী ২০ সেপ্টেম্বর সুপ্রিম কোর্টের বাৎসরিক অবকাশ শুরু হবে। চলবে ২৯ অক্টোবর পর্যন্ত।
২০১৪ সালের ২৯ অক্টোবর মাওলানা মতিউর রহমান নিজামীর মামলায় রায় ঘোষণা করেন বিচারপতি এম ইনায়েতুর রহিম নেতৃত্বাধীন আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল-১। রায়ে ১৬টি অভিযোগের মধ্যে ২, ৪, ৬ ও ১৬ নম্বর অভিযোগে মাওলানা নিজামীর বিরুদ্ধে মৃত্যুদন্ডের রায় দেয়া হয়। ট্রাইব্যুনালের দেয়া এ রায়ের বিরুদ্ধে একই বছরের ২৩ নবেম্বর সুপ্রিম কোর্টে আপিল করেন তিনি। ছয় হাজার ২৫২ পৃষ্ঠার আপিলে মৃত্যুদন্ডের রায় বাতিল করে খালাসের আরিজ জানান মাওলানা নিজামী। মোট ১৬৮টি যুক্তি দেখিয়ে এ আপিল করা হয়।