২৬ মে ২০১৯, রবিবার
Choose Language:

সর্বশেষ
ট্রাইবুনাল
মীর কাসেম আলীর মামলার রায় আজ
২ নভেম্বর ২০১৪, রবিবার,
মানবতাবিরোধী অপরাধের মামলায় আটক জামায়াতের নির্বাহী পরিষদ  সদস্য ও  দিগন্ত মিডিয়া করপোরেশনের চেয়ারম্যান মীর কাসেম আলীর বিরুদ্ধে রায় ঘোষণার জন্য আজ রোববার দিন ধার্য করেছেন ট্রাইব্যুনাল-২। গত বৃহস্পতিবার চেয়ারম্যান বিচারপতি ওবায়দুল হাসানের নেতৃত্বে গঠিত তিন সদস্যের  আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল-২  এ দিন ধার্য করেন।
গত ৪  মে আসামীপক্ষের যুক্তি উপস্থাপন শেষে রায়ের জন্য অপেক্ষমাণ রেখে মামলাটি (সিএভি) ঘোষণা করেন ট্রাইব্যুনাল-২। মামলাটি চলাকালে যুক্তি উপস্থাপনে প্রসিকিউশন দাবি করেছেন তারা মীর কাসেম আলীর অপরাধ প্রমাণ করতে সক্ষম হয়েছেন। এজন্য তার সর্বোচ্চ শাস্তি হবে বলেও আশা প্রকাশ করেন। অন্যদিকে আসামীপক্ষ দাবি করেছেন, মীর কাসেম আলীর বিরুদ্ধে আনীত অভিযোগ মিথ্যা ও ভিত্তিহীন। প্রসিকিউশন তাদের অভিযোগ প্রমাণে ব্যর্থ হয়েছে। তারা আশা করছেন এই মামলা থেকে মীর কাসেম আলী খালাস পাবেন।
উল্লেখ্য গত বছরের ১৬ মে প্রসিকিউটর জেয়াদ আল মালুমসহ প্রসিকিউশন টিম ১৪টি অভিযোগে আনুষ্ঠানিক অভিযোগ ট্রাইব্যুনালের রেজিস্ট্রার বরাবর দাখিল করেন। এবং ২৬ মে তার বিরুদ্ধে অভিযোগ আমলে নেয় ট্রাইব্যুনাল-১। এরপর মামলাটি ট্রাইব্যুনাল-২ এ স্থানান্তর করা হয়। গত বছরের ১৮ নবেম্বর মীর কাসেম আলীর বিরুদ্ধে প্রসিকিউশনের ওপেনিং স্টেটমেন্ট উপস্থাপনের মধ্য দিয়ে বিচার কাজ শুরু হয়। এরপর ১১ ডিসেম্বর তার বিরুদ্ধে সাক্ষ্যগ্রহণ শুরু হয়।
গত বছরের ৫ সেপ্টেম্বর মীর কাসেম আলীকে ১৪টি ঘটনায় অভিযুক্ত করে অভিযোগ গঠন করে ট্রাইব্যুনাল। ২০১২ সালের ১৭ জুন মীর কাসেম আলীর বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করলে ওইদিন বিকেলে মতিঝিল থেকে তাকে গ্রেফতার করে বিকেল সোয়া চারটার দিকে ট্রাইব্যুনালে হাজির করা হয়। ট্রাইব্যুনাল মীর কাসেম আলীকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দিলে ওইদিন রাত সাড়ে আটটার দিকে তাকে ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারে পাঠিয়ে দেয়া হয়।
http://www.dailysangram.com/news_details.php?news_id=162949