১০ জুলাই ২০২০, শুক্রবার
Choose Language:

সর্বশেষ
ট্রাইবুনাল
মাওলানা নিজামীর পক্ষে রিভিউ আবেদন দাখিল: হরতালের চারদিন হাইকোর্ট-সুপ্রিম কোর্ট কোন মামলা নিষ্পত্তি করেনি নিম্ন আদালত বসেনি
১৬ নভেম্বর ২০১৩, শনিবার,
কথিত মানবতাবিরোধী অপরাধের অভিযোগে আটক বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামীর আমীর মাওলানা মতিউর রহমান নিজামীর মামলার রায় যেকোনো দিন ঘোষণা করা হবে মর্মে অপেক্ষমাণ (সিএভি) রেখে গত ১৩ নবেম্বর  ট্রাইব্যুনাল-১ প্রদত্ত আদেশ পুনর্বিবেচনা (রিভিউ) করে অসমাপ্ত আর্গুমেন্ট সমাপ্ত করার আবেদন জানিয়েছেন আসামী পক্ষ। গত বুধবার ট্রাইব্যুনাল-১ এর চেয়ারম্যান বিচারপতি এটিএম ফজলে কবীরের নেতৃত্বে অপর দুই সদস্য বিচারপতি জাহাঙ্গীর হোসেন ও বিচারপতি আনোয়ারুল হকের সমন্বয়ে গঠিত ট্রাইব্যুনাল এ আদেশ দেয়ার পর ঐ দিনই রিকল আবেদন করা হয়। সেই আবেদন গ্রহণ না করার কারণে গতকাল বৃহস্পতিবার এই রিভিউ আবেদন করেন আইনজীবীরা। হরতালের কারণে ট্রাইব্যুনালে আসতে না পারা মাওলানা নিজামীর পক্ষের সিনিয়র আইনজীবীদের পক্ষে দাখিলকৃত সময় আবেদন গত বুধবার নামঞ্জুর করে আর্গুমেন্ট সমাপ্ত আদেশ দিয়ে মামলাটি যেকোন দিন রায় (সিএভি) ঘোষণা করেন। প্রদত্ত ঐ আদেশে ট্রাইব্যুনাল বলেন, আসামীপক্ষ চাইলে আগামী পাঁচদিনের মধ্যে তাদের বাকি যুক্তিতর্ক লিখিতভাবে দাখিল করতে পারবে।
 ট্রাইব্যুনালের এ আদেশের বিরুদ্ধে গতকাল দাখিলকৃত রিভিউ (পুনর্বিবেচনা) আবেদনে বলা হয়, এদেশের দীর্ঘদিনের প্র্যাকটিস হলো হরতালের দিন উচ্চ আদালত বা নি¤œ আদালত বসেনা বা বিচারকার্য সম্পাদন করে না। গত ১০ থেকে ১৩ নবেম্বর ৪ দিনের হরতালের মধ্যে হাইকোর্টের কোন বেঞ্চ বসেনি বা কোন মামলা নিষ্পত্তি করেনি। আইনজীবীরাও কোর্টে আসেননি। এই চারদিন আপিল বিভাগও আইনজীবীর অনুপস্থিতির কারণে কোন মামলা নিষ্পত্তির আদেশ দেয়নি। আপিল বিভাগে নিষ্পত্তির অপেক্ষায় থাকা আল্লামা দেলাওয়ার হোসাইন সাঈদীর মামলা হরতালের চারদিনই কার্যতালিকায় ছিল। কিন্তু সংশ্লিষ্ট আইনজীবী হরতালের কারণে যাননি বিধায় এই মামলার শুনানি হয়নি। আলী আহসান মোহম্মদ মুজাহিদের মামলাটি এই চারদিন তালিকায় ১ নম্বরে থাকলেও সেটাও একইভাবে কোন আদেশ দেয়া হয়নি। যেহেতু সর্বোচ্চ আদালতও হরতালের মধ্যে কোন মামলার নিষ্পত্তি করে না তাই হরতালের কারণে আইনজীবী আসতে না পারার সূত্রে ট্রাইব্যুনাল মাওলানা মতিউর রহমান নিজামীর আর্গুমেন্ট সমাপ্ত করে যে আদেশ দিয়েছেন তা পুনর্বিবেচনাপূর্বক আর্গুমেন্ট সমাপ্ত করার সুযোগ দেয়ার আবেদন জানানো হয়।
এছাড়াও রিভিউ আবেদনে মাওলানা নিজামীর প্রধান ট্রায়াল ল’য়ার মিজানুল ইসলামের শারীরিক অক্ষমতার কথাও উল্লেখ করে বলা হয়, হরতালের মধ্যে প্রতিদিন যেখানে মানুষ খুন হচ্ছে, ভাংচুর অগ্নিসংযোগ, বোমাবাজির মতো ঘটনা ঘটছে সেখানে তিনি কি করে আসবেন। এ কারণেই তার পক্ষে পার্সোনাল গ্রাউন্ডে মুলতবির আবেদন জানানো হয়েছিল। কোর্ট সবসময় এরূপ আবেদন বিবেচনা করে আসলেও ১৩ নবেম্বর বিবেচনা করেনি। রিভিউ আবেদন গ্রহণ করে আর্গুমেন্ট সমাপ্ত করার সুযোগ না দিলে মতিউর রহমান নিজামী ন্যায়বিচার থেকে বঞ্চিত হবেন।
http://www.dailysangram.com/news_details.php?news_id=132074