১৬ অক্টোবর ২০১৯, বুধবার
Choose Language:

সর্বশেষ
ট্রাইবুনাল
সরকার কাদের মোল্লাকে বিচারের নামে খুন করেছে : টবি ক্যাডম্যান
১৪ ডিসেম্বর ২০১৩, শনিবার,
আন্তর্জাতিক খ্যাতিসম্পন্ন মানবাধিকার আইনজীবী টবি ক্যাডম্যান বলেছেন, বাংলাদেশ সরকার জামায়াতে ইসলামীর নেতা আবদুল কাদের মোল্লাকে বিচারের নামে খুন করেছে। কাদের মোল্লা ন্যায়বিচার পাননি বলেও তিনি আবারো উল্লেখ করেন।
বৃহস্পতিবার ওয়াশিংটনে ন্যাশনাল প্রেস কাবে এক সংবাদ সম্মেলনে ক্যাডম্যান ত্রুটিপূর্ণ বিচারকার্যক্রম, অপহরণ, ঘুষের অভিযোগ এবং আগামী মাসে অনুষ্ঠেয় জাতীয় নির্বাচন পরিচালনার জন্য দমনপীড়ন চালিয়ে বাংলাদেশ সরকার দেশকে ধ্বংসের দ্বারপ্রান্তে নিয়ে যাচ্ছে, তার বর্ণনা দেন।
বৃহস্পতিবার বাংলাদেশ সময় রাত ১০টা ১ মিনিটে আবদুল কাদের মোল্লার ফাঁসি কার্যকর করার খবর জানিয়ে ক্যাডম্যান এটাকে জঘন্য একটি সরকারের জঘন্য কাজ হিসেবে অভিহিত করেন।
তিনি বলেন, দুই বছর ধরে তিনি চেষ্টা করেছেন, যাতে তার মক্কেল ন্যায়বিচার পান। কিন্তু কাদের মোল্লা ন্যায়বিচার পাননি। তাকে তাড়াহুড়া করে ফাঁসি দেয়া হয়। এটাকে কেবল বিচারের নামে খুন হিসেবেই অভিহিত করা যায়।
ক্যাডম্যান বলেন, এটা অত্যন্ত দুঃখজনক যে বিচারপ্রক্রিয়া যাতে নিরপেক্ষ হয় সে জন্য আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের নানা উদ্বেগ ও হুঁশিয়ারির প্রতি বাংলাদেশ সরকার কর্ণপাত করেনি। তিনি এ প্রসঙ্গে আন্তর্জাতিক মানদণ্ড অনুসরণ করার মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী জন কেরি, জাতিসঙ্ঘ মানবাধিকারবিষয়ক হাইকশিনার, ব্রিটিশ পররাষ্ট্রমন্ত্রী, তুরস্কের প্রধানমন্ত্রী, হিউম্যান রাইট ওয়াচ, ইউরোপিয়ান ইউনিয়নের অনুরোধের কথা উল্লেখ করেন।
তিনি বলেন, এসব অনুরোধ তো রক্ষা করাই হয়নি, বরং সরকার তাড়াহুড়া করে বিচার করেছে এবং সব আন্তর্জাতিক নিয়মনীতি অগ্রাহ্য করে তা কার্যকর করেছে। এর ফলে বাংলাদেশের নির্বাচনী প্রক্রিয়া নস্যাৎ হবে বলেও মনে হচ্ছে।
ক্যাডম্যান বলেন, ‘বৃহস্পতিবার যা ঘটেছে, সে জন্য আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের দায়দায়িত্ব নিতে হবে।’ এর ফলে যে পরিস্থিতির উদ্ভব হতে পারে সে ব্যাপারে তিনি আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়কে হুঁশিয়ার করে দেন।
তিনি বাংলাদেশ সরকারকে হুঁশিয়ার করে দিয়ে বলেন, সরকারের কার্যক্রম আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের, বিশেষ করে আন্তর্জাতিক ফৌজদারি আদালতের তীèদৃষ্টিতে রয়েছে। কারণ বাংলাদেশ রোম চুক্তিতে স্বাক্ষরকারী দেশ।
তিনি বলেন, বেশ কয়েকটি শক্তিশালী দেশ বাংলাদেশকে রাজনৈতিক ও অর্থনৈতিকভাবে সমর্থন করে। এখন প্রশ্নের সৃষ্টি হয়েছে, এই সমর্থন অব্যাহত থাকবে কি না।
http://www.dailynayadiganta.com/details.php?nayadiganta=MzAwOQ==&s=MQ==